ইন্টারনেট ব্যাংকিং কি? কিভাবে ইসলামী ব্যাংকের আই ব্যাংকিং এ রেজিস্ট্রেশন করবেন?

0
700

টিআইবিঃ আসসালামু আলাইকুম। ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার প্রথম সুদমুক্ত ব্যাংক হিসেবে ১৯৮৩ সালে তাদের পথ চলা শুরু করে। iBanking বা ইন্টারনেট ব্যাংকিং আধুনিক ব্যাংকিং সেবায় ব্যাংকের নতুন সংযোজন। ইসলামী ব্যাংকের ইন্টারনেট ব্যাংকিং এর মাধ্যমে কর্মস্থলে, বাসায় কিংবা চলার পথে খুবই সহজ, নিরাপদ ও দ্রুত সেরে নেয়া যাবে আপনার ব্যাংকিং চাহিদার প্রায় সবটুকুই। গ্রাহকবান্ধব এ সেবা এখন দিন রাত ২৪ ঘণ্টা আপনার হাতের নাগালে।

আই ব্যাংকিং বা ইন্টারনেট ব্যাংকিং কি?

ইন্টারনেট ব্যবহার করে গ্রাহক কর্তৃক ব্যাংকের কোন সাধারণ কার্যক্রম পরিচালনা করাকেই ইন্টারনেট ব্যাংকিং, অনলাইন ব্যাংকিং বা আই ব্যাংকিং বলা হয়। এক্ষেত্রে গ্রাহক ইন্টারনেটে যুক্ত হয়ে, ব্যাংকের নির্দিষ্ট সুরক্ষিত ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে, ব্যাংক কর্তৃক প্রদত্ত ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে, তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে প্রবেশের মাধ্যমে অনলাইন ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করে।

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ইন্টারনেটের মাধ্যমে সকল ব্যাংকের সব ব্যাংকি কার্যক্রম করা যায় না। ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড, ইস্টার্ণ ব্যাংক লিমিটেড, এইচএসবিসি ব্যাংক, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড, প্রাইম ব্যাংক অনলাইন ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

ইসলামী ব্যাংকের iBanking এর সেবা সমূহ:

  • একাউন্ট সংক্রান্ত সেবাসমূহ
    • একাউন্ট ব্যালেন্স
    • একাউন্ট স্ট্যাটমেন্ট
    • ট্রানজেকশন সামারী
  • লেনদেন সংক্রান্ত সেবাসমূহ
    • আই ট্রান্সফার (ফান্ড ট্রান্সফার)
      • আইবিবিএল টু আইবিবিএল
      • আইবিবিএল টু আদারস্ ব্যাংক
    • আই রিচার্জ (এয়ার টাইট ক্রয়/ মোবাইল রিচার্জ)
    • ওয়াইম্যাক্স রিচার্জ
  • বিনিয়োগ সংক্রান্ত সেবাসমূহ
    • বিনিয়োগ একাউন্ট স্টেটমেন্ট
    • কাস্টমার ওয়াইজ লায়াবিলিটি
    • মোড ওয়াইজ লায়াবিলিটি
    • লায়াবিলিটি এ্যাট এ গ্ল্যান্স অব পার্টি
  • বৈদেশিক বাণিজ্য সংক্রান্ত সেবাসমূহ
    • কস্ট সিট ফর নিগোসিয়েশন
    • কস্ট সিট ফর রিয়েলাইজেশন
    • কস্ট সিট ফর রিটায়ারমেন্ট অব এ বিল
  • ক্লিয়ারিং ইন্সট্রুমেন্ট সংক্রান্ত সেবাসমূহ
    • ক্রেডিট ক্লিয়ারিং ইন্সট্রুমেন্ট স্ট্যাটাস
    • ডেবিট ক্লিয়ারিং ইন্সট্রুমেন্ট স্ট্যাটাস
  • এফটিটি  ও এফডিডি সংক্রান্ত সেবাসমূহ
    • এফটিটি ম্যাসেজ সার্চ
    • এফডিডি পেমেন্ট সার্চ
  • চেক পরিচালনা সংক্রান্ত সেবাসমূহ
    • নতুন চেক ইস্যু অনুরোধ
    • চেক পেমেন্ট বন্ধ করন
  • ইউটিলিটি বিল পেমেন্ট সিস্টেম
  • খিদমাহ ক্রেডিট কার্ড – বিল পে
  • জিপি ওয়ালেট রিফিল
  • একাউন্ট নো উইথড্রোল করন
  • আরটিজিএস ফান্ড ট্রান্সফার
  • এনপিএসবি ফান্ড ট্রান্সফার

iBanking এ রেজিস্ট্রেশনের জন্য সাধারণ নির্দেশনা:

১। গ্রাহকের একটি সচল এবং নিয়মিত ব্যবহৃত ই-মেইল থাকতে হয়।

২। গ্রাহকের ই-মেইলটি  iBanking এর User ID হিসাবে ব্যবহৃত হয়।

৩। ই-মেইল এর ম্যাসেজ বক্স ফুল রাখা যাবে না।

৪। রেজিস্ট্রেশনের সময় @hotmail.com/ @msn.com/ @live.com/ @aol.com ই-মেইল ব্যবহার না করাই বাঞ্ছনীয়।

৫। ব্যাংকের পাঠানো ই-মেইল চেক করার সময় গ্রাহকের ই-মেইল এর Inbox এ দেখতে হবে (না পাওয়া গেলে অবশ্যই Spam Box-এ দেখতে হয় )।

৬। গ্রাহকের ১৭ ডিজিটের পূর্ণ একাউন্ট নাম্বার এবং ১৩ ডিজিটের কাস্টমার আইডি ব্যাংক থেকে/ (16259/+88028331090) সংগ্রহ করে রেজিস্ট্রেশনের সময় ব্যবহার করতে হবে।

৭। রেজিস্ট্রেশন করার সময় একটি ফোন নাম্বার ও জন্ম তারিখ বাধ্যতামূলকভাবে দিতে হবে। পরবর্তীতে Unbanned Request পাঠানোর জন্য তথ্যগুলো সংরক্ষণ করতে হবে।

৮। কর্পোরেট ক্লায়েন্টদের ক্ষেত্রে (কোম্পানি, এক্সচেঞ্জ হাউস, ইনস্টিটিউট গ্রুপ) :

  •  কর্মকর্তা/কর্মচারীদের ব্যক্তিগত ই-মেইল আইডি পরিবর্তে কোম্পানির ই-মেইল দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।
  • গ্রুপ অফ কোম্পানির ক্ষেত্রে, অথবা যারা এক / একাধিক অ্যাকাউন্টে বিপরীতে একাধিক অ্যাক্সেস দিতে চায় তাদেরকে একটি মাত্র ই-মেইল দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

কিভাবে iBanking এ রেজিস্ট্রেশন করবেন?

👉 প্রথমে আপনার স্মার্টফোন বা কম্পিউটার থেকে https://ibblportal.islamibankbd.com এই ঠিকানায় প্রবেশ করুন।

ছবি: আই ব্যাংকিং রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি।

👉 এরপর আইবিবিএল iBanking পেজে Sign up অপশনে ক্লিক করুন।

👉 ক্লিক করার পরে নতুন একটি পেজ ওপেন হবে এখানে আপনার ফার্স্ট নেম এবং লাস্ট নেমে সাথে ই-মেইল এ্যাড্রেস দিয়ে সাবমিট করুন।

👉 আপনার ই-মেইলে একটি লিংক পাবেন সে লিংকে ক্লিক করলে মূল রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া শুরু হবে।

👉 এরপর যে পেজ আসবে সেই পেজে আপনার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা, জন্ম তারিখ, NID নম্বর দিয়ে সাবমিট দিন।

👉 নতুন একটি পেজ আসবে সেই পেজে আপনার অ্যাকাউন্টের ১৭ ডিজিট নাম্বার ও ১৩ ডিজিটের আইডি নাম্বার দিয়ে সাবমিট দিন।

👉 নতুন পেজে আপনার দেশ সিলেক্ট করে মোবাইল নাম্বার ও পাসওয়ার্ড দিয়ে সাবমিট দিন (পাসওয়ার্ড মিনিমাম ১২ সংখ্যার হবে, ক্যাপিটাল লেটার, স্মল লেটার, সিম্বল এবং নাম্বার মিলে পাসওয়ার্ড সেট করতে হবে )।

👉 আপনার মোবাইলে একটি ভেরিফিকেশন কোডের ম্যাসেজ পাবেন।

👉 এরপর যে পেজ আসবে সেই পেজে আপনার মোবাইলে প্রাপ্ত ভেরিফিকেশন কোড এবং Challenge Image দিয়ে সাবমিট দিন।

👉 আপনার রেজিষ্ট্রেশন সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

👉 এরপর ফাইনাল যে পেজ আসবে সেই পেজটি প্রিন্ট করার পর স্বাক্ষর করে সংশ্লিষ্ট শাখায় জমা দিতে হবে।

👉 ব্যাংক কর্মকর্তাগণ তা Verify করে অনুমোদন করেন।

👉 শাখা থেকে অনুমোদন করার পর পরই একটি এ্যাক্টিভেশন মেইল চলে যায় গ্রাহকের ই-মেইল এ।

👉 ই-মেইল খুলে তাতে নির্দেশিত পদ্ধতি অনুসরণ করে iBanking অ্যাক্টিভেট করতে হবে।

✔️রেজিষ্ট্রেশন পদ্ধতিটির পিডিএফ ম্যানুয়াল পেতে ক্লিক করুন।

✔️সমস্যা হলে ভিডিও টিউটোরিয়ালটি দেখুন…

উপরিউক্ত ধাপের যদি একটিও বাদ পরে তাহলে গ্রাহকের আই ব্যাংকিং রেজিস্ট্রেশন অসম্পূর্ণ থেকে যাবে এবং গ্রাহকগণ আই ব্যাংকিং এর সেবা সমূহ গ্রহণ করতে পারেন না। শুধুমাত্র রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সঠিকভাবে সম্পন্ন হওয়ার পরই গ্রাহকগণ ইউজার আইডি ও পাসওয়ার্ড এর মাধ্যমে আই ব্যাংকিং লগইন করতে পারবেন।

আরো বিস্তারিত জানতে যেকোন মোবাইল থেকে কল করুন 16259, বিদেশ থেকে (+880)-2-8331090।

কার্টেসিঃ ব্যাংকিং নিউজ বাংলাদেশ।

Leave a Reply