টেকনো ইনফোঃ আসসালামু আলাইকুম। অ্যান্ড্রয়েড বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় অপারেটিং সিস্টেম। এখন এটি শুধুমাত্র মোবাইলের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয় ঘড়ি থেকে শুরু করে টিভি পর্যন্ত সবকিছু এখন চলছে এই অপারেটিং সিস্টেমের উপর ভিত্তি করে।

প্রশ্ন করতে পারেন অ্যান্ড্রয়েড টিভি কি? অবশ্যই এটি এমন একটি টিভি যা অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের উপর নিয়ন্ত্রিত। এতে আরো বেটার এক্সপেরিয়েন্স পাওয়া সম্ভব, আরো বেটার রিমোট সাপোর্ট, বিশেষ করে অ্যাপ রান করানোর সুবিধা। কিন্তু এই টিভিগুলো অপেক্ষাকৃত বেশ দামি। চাইলেই ঘরের সাধারণ টিভিটি বদলে ফেলে স্মার্ট টিভি কেনা যায় না। তবে চাইলে সেই সাধারণ টিভিটাকে ছোট একটি ডিভাইসের মাধ্যমে বদলে ফেলা সম্ভব। আর এই ডিভাইসটাকেই বলা হয় ‘অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স’। আজকের এই পোস্টে আমরা অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করবো।

অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স কী?

‘অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স’ হচ্ছে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম চালিত এমন একটি ডিভাইস, যা দিয়ে একটি সাধারণ টিভিকে স্মার্ট টিভিতে রূপান্তরিত করা যায়। অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্সকে একটি টিভি কন্ট্রোলার বলতে পারেন, আপনার টিভিতে কি দেখানো হবে, সেটা সম্পূর্ণই ঐ বক্স নির্ধারণ করবে, এমনকি আপনার টিভির রিমোট কন্ট্রোল ব্যবহার করারও প্রয়োজন পড়বে না, আপনাকে বক্সের রিমোট ব্যবহার করে কাজ করতে হবে। আপনার টিভি শুধু মনিটর হিসেবে কাজ করবে। যেমনটা কম্পিউটারের ক্ষেত্রে সিপিইউ বক্স সমস্ত কিছু কাজ করে, মনিটর জাস্ট প্রদর্শিত করাতে সাহায্য করে।

টিভিতে অ্যান্ড্রয়েড রান করানোর সবচাইতে বড় সুবিধা হচ্ছে অ্যান্ড্রয়েডকে বিশাল স্ক্রীনে উপভোগ করার সুবিধা। সাথে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ, গেম, যেকোনো মুভি যেকোনো সময় প্লে করতে পারবেন। আর টিভিতে ইন্টারনেট সংযোগ যুক্ত করার মাধ্যমে ইন্টারনেট কন্টেন্ট যেমন ইউটিউব, নেটফ্লিক্স বা যেকোনো ওয়েব ভিডিও ওয়েবসাইট থেকে ভিডিও স্ট্রিম করতে পারবেন। শুধু আপনার বর্তমান টিভিকে এভি বা এইচডিএমআই পোর্টের সাথে কানেক্ট করে কাজ করতে পারবেন।

অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স কেন কিনবেন?

প্রশ্ন করতে পারেন, আপনার অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স কেনার প্রয়োজনীয়তা কতোটুকু। অবশ্যই আপনি যদি নর্মাল কোন এইচডি টিভি চালিয়ে থাকেন, সেক্ষেত্রে অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স আপনার জন্য গুরুত্বপূর্ণ সলিউসন হতে পারে, বিশেষ করে নর্মাল টিভিকে স্মার্ট টিভিতে পরিবর্তন করার ক্ষেত্রে। নতুন টিভি কিনতে গেলে সেখানে কয়েক হাজার বিশেষ করে ২৫-৩০ হাজারের মতো খরচ হয়ে যেতে পারে, সেখানে ১০ হাজারেরও কম খরচ করার মাধ্যমে যেকোনো টিভিকে স্মার্ট টিভি’র রুপ প্রদান করতে পারবেন। সুতরাং এর প্রয়োজনীয়তা অবশ্যই অনুধাবন করতে পারছেন।

অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স যেভাবে কাজ করে?

অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স চালাতে হলে ইথারনেট বা ওয়াই-ফাইয়ের সংযোগ থাকতে হবে। চাইলে কেবলের মাধ্যমে সরাসরি টিভি বক্সে ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়া যায়। আর যদি তারের ঝামেলায় যেতে না চান ওয়াই-ফাই ব্যবহার করতে পারেন। এতে ওয়াই-ফাইয়েরও সুবিধা আছে। অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স কেনার আগে দেখে নিতে হবে আপনার টিভিতে এইচডিএমআই পোর্ট আছে কি না। এটা না থাকলে ইউএসবি পোর্ট আছে কি না। সেটা থাকলে আপনার একটি এইচডিএমআই কনভার্টার লাগবে, যার মাধ্যমে টিভির সঙ্গে অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্সের সংযোগ দেওয়া যাবে। এই টিভি বক্সের সঙ্গে একটি রিমোট কন্ট্রোল দেওয়া থাকে। চাইলে অতিরিক্ত মাউস ও কি-বোর্ড ব্যবহার করা যাবে ইউএসবি পোর্টের সাহায্যে।

অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্সের দরদাম?

বাজারে হরেক ব্র্যান্ডের অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্সই পাওয়া যায়। নন-ব্র্যান্ড ছাড়াও রেজার, এনভিডিয়া, শাওমির মতো প্রতিষ্ঠানও টিভি বক্স তৈরি করে থাকে। তবে বাজারে চায়না টিভি বক্সের সংখ্যাই বেশি। এসবের দামও অপেক্ষাকৃতভাবে বেশ কম।

চায়নিজ ‘টিএক্স২-আর২’ মডেলের ২ গিগাবাইট র‌্যাম ১৬ গিগাবাইট রমের অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স পাওয়া যাচ্ছে ২৮০০ থেকে ৩৩০০ টাকায়। ১ গিগাবাইট র‌্যাম ও ৮ গিগাবাইট রমের দাম ২৭০০ টাকা থেকে শুরু।

‘টিএক্স থ্রি মিনি এ’ মডেলের ২ গিগাবাইট র‌্যাম ১৬ গিগাবাইট রমের অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্সের দাম ৪০০০ টাকা। ২ গিগাবাইট র‌্যাম ১৬ গিগাবাইট রমের ‘এমএক্সকিউ’ অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্সের দাম ৩৫০০ টাকা, ২ গিগাবাইট র‍্যাম ১৬ গিগাবাইট রমের ‘টিএক্স থ্রি মিনি’, ’টিএক্স ৯৬ মিনি’ অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স পাওয়া যাচ্ছে ৩০০০ থেকে ৩৫০০ টাকার মধ্যে।

শাওমির ‘এমআই এমডিজেড-১৬-এবি’ মডেলের টিভি পাওয়া যায় বাজারে। অনুমোদিত বিক্রয়কেন্দ্র থেকে ২ গিগাবাইট র‌্যাম ১৬ গিগাবাইট রমের টিভি বক্সের দাম পড়বে আট হাজার টাকা। আর অননুমোদিত বিক্রয়কেন্দ্র থেকে কিনলে এই টিভি বক্সের দাম পড়বে ৫৮০০ থেকে ৬৪০০ টাকার মধ্যে।

অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স কোথায় পাবেন?

রাজধানীর প্রায় সব এলাকাতেই ইলেকট্রনিকস পণ্য বিক্রির দোকানগুলোতে কমবেশি এই টিভি বক্স পাওয়া যায়। পাওয়া যাবে বিভিন্ন টেলিভিশনের শোরুমগুলোতেও। এ ছাড়া পান্থপথের বসুন্ধরা সিটি, হাতিরপুলের মোতালিব প্লাজা, বায়তুল মোকাররম সুপারমার্কেট, বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম মার্কেট, গুলশানের পুলিশ প্লাজা, যমুনা ফিউচার পার্ক, আগারগাঁওয়ের বিসিএস কম্পিউটার সিটি, এলিফ্যান্ট রোডের মাল্টিপ্ল্যান সেন্টারসহ বিভিন্ন স্থানে পাওয়া যায় এই টিভি বক্স। এসবের পাশাপাশি বিভিন্ন অনলাইন থেকে কিনতে পারেন অ্যান্ড্রয়েড টিভি বক্স।

Leave a Reply