টিআইবি: আসসালামু আলাইকুম। বিদেশে অভিবাসন, পড়াশোনা, কাজ কিংবা ভ্রমণের ভিসার জন্য প্রতিবছর অনেকে আবেদন করেন। দরকারি সব তথ্যই এখন অনলাইনে। ঠিকঠাক জেনে আবেদন করলে আর হয়রানি হতে হবে না। নিচে এ সম্পর্কে বিস্তারিত ….

অভিবাসন

অস্ট্রেলিয়া : ভ্রমণ, কাজ, অস্থায়ী বসবাস, চিকিৎসা, নাগরিকত্ব ইত্যাদি ভিসা পাওয়ার জন্য কী লাগবে, কিভাবে আবেদন করতে হবে, কেমন খরচ পড়বে—জানা যাবে ভিএফএস গ্লোবালের সাইট www.vfsglobal.com/Australia/Bangladesh/visitor_visa.html-এ।

এখানে আবেদন ফরমও আছে। আবেদন করার পর তা ট্র্যাক করা যাবে www.vfsglobal.com/Australia/Bangladesh/track_application.html থেকে। চাইলে অফিস সময়ে কল (+৮৮-০৯৬০৬৭৭৭৯৯৯, +৮৮-০৯৬৬৬৯১১৩৮১) করেও তথ্য জানা যাবে।

এ ছাড়া অস্ট্রেলিয়ার ডিপার্টমেন্ট অব ইমিগ্রেশন অ্যান্ড বর্ডার প্রটেকশনের সাইটে (www.border.gov.au) ভিসা তথ্য ও অনলাইনভিত্তিক সেবা পাওয়া যাবে।

কাঙ্ক্ষিত ভিসা আবেদনের আগে এর যোগ্যতা আছে কি না, এ ব্যাপারে করণীয় কী জানতে হলে ক্লিক করুন

www.border.gov.au /Trav/Visa-1 লিংকে।

কানাডা: কানাডা সরকারের সিটিজেনশিপ অ্যান্ড ইমিগ্রেশন কানাডা (সিআইসি) কর্তৃপক্ষ বিদেশিদের অভিবাসন ও নাগরিকত্বের বিষয়টি দেখভাল করে। সিআইসির ওয়েবসাইটে (www.cic.gc.ca) ভিসাপ্রার্থীরা অভিবাসনের পাশাপাশি ভ্রমণ, চাকরি, শিক্ষা ভিসার বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পারবে। এ ছাড়া প্রার্থীর ভিসা আবেদনের যোগ্যতা আছে কি না, তা-ও যাচাই করা যাবে এ সাইটে।

বাংলাদেশি প্রার্থীদের কোন ভিসার জন্য কী কী লাগবে, আবেদন কিভাবে, কেমন সময় লাগবে, ফি কত দিতে হবে, তা জানা যাবে ভিএফএস গ্লোবালের সাইট www.vfsglobal.ca/Canada/Bangladesh থেকে। আবেদনের পর প্রার্থীরা আবেদনপ্রক্রিয়ার হাল অবস্থাও জানতে পারবে অনলাইনে

http://bit.ly/2trWEd4-এ।

যুক্তরাজ্য: যুক্তরাজ্যের ভিসা ও অভিবাসনের তথ্য দিয়ে সাজানো হয়েছে ওয়েবসাইট www.gov.uk/government/organisations/uk-visas-and-immigration। তথ্যবহুল এ সাইটে অভিবাসন ভিসা ছাড়াও ভ্রমণ, শিক্ষা, দক্ষ কর্মী ও পেশাজীবীদের ভিসার তথ্য পাওয়া যাবে।

এ সাইট থেকে প্রার্থীরা তাদের উপযোগী ভিসার তথ্য ও করণীয়, আবেদনপ্রক্রিয়া, ভিসাপ্রক্রিয়ার সময়কাল, ভিসা-আশ্রয় (Asylum) স্পন্সরশিপ, অভিবাসননীতি, স্থায়ী বসবাস, ভিসা ফি, অনুমোদিত স্পন্সর প্রতিষ্ঠান ইত্যাদি তথ্য জানতে পারবে।

এ ছাড়া যুক্তরাজ্য সরকারের ভিসা ও অভিবাসন কর্তৃপক্ষের অফিশিয়াল পার্টনার ভিএফএস গ্লোবালের ওয়েবসাইটে (www.vfsglobal.co.uk/bangladesh) বাংলাদেশিদের জন্য নির্ধারিত ভিসা ফি, ভিসা প্রত্যাখ্যানের ক্ষেত্রে আপিল সম্পর্কিত পরামর্শ, ভিসা আবেদনের যোগ্যতা, গাইডলাইন জানা যাবে।

আবেদন করার পর এর সর্বশেষ অবস্থা বা স্ট্যাটাস জানতে হলে যোগাযোগ করতে হবে এই লিংক থেকে—

www.gov.uk/contact-ukvi-inside-outside-uk

পড়াশোনা

যুক্তরাজ্য: যুক্তরাজ্যে পড়াশোনার চিন্তাভাবনা করছেন? একনজরে দেখে নিন যাবতীয় তথ্য। কোন কোন বিষয়ে পড়ার সুযোগ আছে, বৃত্তি, ভর্তির আগে প্রস্তুতি, ভর্তিপ্রক্রিয়া, অনুমোদিত এজেন্টদের তালিকা—সব তথ্যই পাবেন ব্রিটিশ কাউন্সিলের ওয়েবসাইটে—

www.britishcouncil.org.bd/en/study-uk

ভর্তিবিষয়ক সেবা ইউনিভার্সিটি অ্যান্ড কলেজ সার্ভিস অ্যাডমিশনস সার্ভিসের (ইউসিএএস) সাইটে (www.ucas.com) বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কোর্স তালিকা, ভর্তির সময়সীমা ও অন্যান্য তথ্য জানা যাবে। অনেক ক্ষেত্রে বিদেশি শিক্ষার্থীদের আর্থিক সুবিধাও দেওয়া হয়। আরো জানতে দেখুন—

  • www.gov.uk/student-finance
  • www.thestudentroom.co.uk/content.php?r=27780-It-s-time-to-apply-for-your-student-finance

যুক্তরাষ্ট্র: পড়াশোনা ও অন্যান্য ভিসার ফিসহ বিস্তারিত তথ্য এবং আবেদনের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেওয়া আছে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ডিপার্টমেন্ট অব স্টেটের অফিশিয়াল সাইটের ‘ভিসা ফর ফরেন সিটিজেন’ বিভাগে। আরো জানা যাবে https://travel.state.gov/ content/travel/en.html ওয়েবসাইটে। দেশটির বাংলাদেশ দূতাবাসের সাইটেও পাওয়া যাবে দরকারি তথ্য ৷

কানাডা: কানাডায় ভর্তি, পড়াশোনা, খরচসহ দরকারি সব তথ্য পাওয়া যাবে দেশটির সিটিজেনশিপ ও ইমিগ্রেশনের (সিআইসি) সাইটে— www.cic.gc.ca/english/Study

ভিসা আবেদন প্রক্রিয়ার ধাপ, খরচ, খরচাপাতি সম্পর্কে জনতে ভিজিট করুন ভিএফএস গ্লোবালের ওয়েবসাইটে— www.vfsglobal.ca/Canada/Bangladesh

আবেদন জমা দেওয়ার পর কী অবস্থায় আছে তা-ও এ সাইট থেকে জানা যাবে।

কানাডা সরকারের উচ্চশিক্ষা বৃত্তি পাবেন www.scholarships-bourses.gc.ca/scholarships-bourses সাইটে।

চীন: চীনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি, বৃত্তি ও ভর্তিপূর্ব প্রস্তুতি সম্পর্কে জানা যাবে সে দেশের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সাইটের (http://en.moe.gov.cn) ‘স্টাডি ইন চায়না’ অংশে। বৃত্তির পাশাপাশি ভর্তি-পড়াশোনার তথ্য মিলবে চায়না স্কলারশিপ কাউন্সিলের সাইটে (www.csc.edu.cn/studyinchina)।

বাংলাদেশের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটেও (www.moedu.gov.bd) বিভিন্ন দেশের সরকারের বৃত্তির তথ্য নিয়মিত পোস্ট করা হয়।

মালয়েশিয়া: বিভিন্ন কোর্সের পড়াশোনার জন্য উপযুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের খোঁজখবর জানার পাশাপাশি পড়াশোনার ভিসার আবেদন করা যাবে educationmalaysia.gov.my সাইট থেকে। আবেদন করার পর তার সর্বশেষ অবস্থাও জানা যাবে এ সাইটে। মালয়েশিয়ায় কোন ভিসায় আবেদন করতে হলে কী কী লাগবে, আবেদনের নিয়ম-কানুন, আবেদন ফরমসহ প্রয়োজনীয় সব তথ্যই পাওয়া যাবে www.imi.gov.my/index.php/en সাইটটিতে। সাইটটির মেন্যুর ‘মেইন সার্ভিস’-এ গিয়ে ভিসা অংশে ক্লিক করলে সব ধরনের ভিসার পুরো তথ্য জানা যাবে। বিভিন্ন দেশের পড়াশোনার তথ্য এক সাইটে পেতে চোখ রাখুন—

  • www.goabroad.com
  • www.studyabroad.com
  • www.gooverseas.com/study-abroad

কাজ

সরকারিভাবে বিদেশে কর্মী নিয়োগের খবরাখবর পাওয়া যাবে বোয়েসেলের সাইটে (www.boesl.gov.bd)। এ ছাড়া বিডি জবসেও (www.bdjobs.com) পাওয়া যাবে বিদেশে বিভিন্ন পেশার চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি।

কাজের ভিসার তথ্য পাওয়া যাবে বিভিন্ন দেশের  ইমিগ্রেশন বিভাগের সাইটে।

সিঙ্গাপুর: অনেকেই ওয়ার্ক ভিসা পারমিট নিয়ে পাড়ি জমাচ্ছেন সিঙ্গাপুরে। ভ্রমণ ও স্টুডেন্ট ভিসায়ও যাচ্ছে অনেকে। বিদেশি কর্মীদের ভিসাসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য পেতে সহায়ক হবে দেশটির ‘ইমিগ্রেশন অ্যান্ড চেক পয়েন্টস অথরিটির’ অফিশিয়াল ওয়েবসাইট www.ica.gov.sg।

সাইটটির ই-সার্ভিস অংশে ‘ইলেকট্রনিক অ্যাপয়েন্টমেন্ট বুকিং সিস্টেমস’ (ই-অ্যাপয়েন্টমেন্ট),  রি-এন্ট্রি পারমিট ভিসা ও এন্ট্রি ভিসার আবেদন এবং একই সঙ্গে ইস্যুকৃত ভিসার বৈধতা যাচাই করা যাবে। অনলাইনে ভিসার বৈধতা ও ভিসা আবেদন প্রক্রিয়ার সর্বশেষ অবস্থা জানতে ক্লিক করুন https://ltpass.ica.gov.sg/eltsvp/main.do লিংকে।

নিউজিল্যান্ড: কাজের পাশাপাশি স্থায়ী বসবাস, ব্যবসা, পারিবারিক ভিসার বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে নিউজিল্যান্ডের ইমিগ্রেশন সাইট (ww.immigration.govt.nz) থেকে। এখান থেকে অনলাইনে আবেদনও করা যাবে।

‘স্কিল মাইগ্রেন্ট’ ও ‘বিজনেস অ্যান্ড ইনভেস্টম্যান’ ক্যাটাগরিতে পাওয়া যাবে দক্ষ কর্মী, পেশাজীবী ও ব্যবসায়ীদের ভিসাসংক্রান্ত তথ্য।

ভিসা জটিলতা এড়াতে পরামর্শ-সহযোগিতা পাওয়া যাবে ‘অ্যাসিস্ট মাইগ্র্যান্ডস ও স্টুডেন্টস’ অংশের পাশাপাশি ইমিগ্রেশন অ্যাডভাইজরস অথরিটি সাইট (www.iaa.govt.nz) থেকে।

বিদেশি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাজ পাইয়ে দিতে আছে বহু মধ্যস্থতাকারী জব সাইট। এসব সাইটে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে অনলাইনেই আবেদন করতে পারেন। এ ধরনের জনপ্রিয় সাইটগুলোর মধ্যে আছে—

  • www.monster.com
  • www.gulftalent.com
  • www.simplyhired.com
  • www.gulftalent.com
  • www.jobstreet.com

ভ্রমণ

যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ কিংবা ব্যবসার জন্য দুই ক্যাটাগরির ভিসা আছে—বি১ ও বি২। বি১ ব্যবসার কাজে, বি২ ভ্রমণের জন্য। এই ক্যাটাগরির ভিসা নিয়ে দেশটিতে কোনো কাজ, পড়াশোনা, এমনকি সাংবাদিকতাও করা যাবে না। আরো জানতে ক্লিক করুন—

https://travel.state.gov/content/visas/en/visit/visitor.html

যুক্তরাজ্যে ভ্রমণ কিংবা স্বল্প মেয়াদি ভিসার তথ্য জানা যাবে

www.gov.uk/browse/visas-immigration/tourist-short-stay-visas লিংক থেকে।

ভারতের ভ্রমণ ভিসা পেতে হলে কী কী লাগবে, কোথায় কিভাবে আবেদন করতে হবে—জানা যাবে www.ivacbd.com সাইটে।

থাইল্যান্ডের ভিসা পেতে আবেদন করতে হয় ভিএফএস গ্লোবালে (www.vfsglobal.com/Thailand/Bangladesh)।

এ ছাড়া বিভিন্ন দেশে ভ্রমণের ওপর যাবতীয় সব তথ্য পাওয়া যাবে সাইটগুলোতে—walkit.com

Leave a Reply