চার্জ ছাড়াই ব্যাংক থেকে মোবাইলে করা যাবে লেনদেন

চালু হতে যাচ্ছে ডিজিটাল লেনদেন মাধ্যম ‘বিনিময়’। এই পদ্ধতিতে গ্রাহকেরা ব্যাংক, এমএফএস ও পিএসপির মধ্যে আন্তঃলেনদেন নিষ্পত্তির সুযোগ পাবে। প্লাটফর্মটিতে ব্যাংক টু ব্যাংক যে কোনো অংকের লেনদেনে গ্রাহক থেকে সর্বোচ্চ ১০ টাকা নেওয়া যাবে। ব্যাংক থেকে পিএসপি ও এমএফএস (বিকাশ, রকেট, এম ক্যাশ) লেনদেনে গ্রাহক থেকে কোনো চার্জ নেওয়া যাবে না।

টেকনো ইনফো বিডি‘র প্রিয় পাঠক: প্রযুক্তি, ব্যাংকিং ও চাকরির গুরুত্বপূর্ণ খবরের আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ টেকনো ইনফো বিডি তে লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন।

বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলারের মাধ্যমে বিনিময় প্লাটমফর্ম থেকে লেনদেনের সার্বিক বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।

মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিসেস (এমএফএস) থেকে এমএফএস বা ব্যাংকের মধ্যে আন্তঃলেনদেন শুরুতে প্রাথমিকভাবে ১১টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে লেনদেন শুরু হতে যাচ্ছে। এর মধ্যে ৮টি ব্যাংক যুক্ত হচ্ছে। ব্যাংকগুলোর মধ্যে রয়েছে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক, পূবালী ব্যাংক, আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংক, সোনালী ব্যাংক, ব্র্যাক ব্যাংক, ইউসিবি ব্যাংক, ইস্টার্ন ব্যাংক ও মিডল্যান্ড ব্যাংক।

এছাড়া তিনটি মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস (এমএফএস) প্রতিষ্ঠান হলো- ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের রকেট, ইসলামী ব্যাংকের এম ক্যাশ, এবং বিকাশ। এর বাইরে টালি পে নামের একটি পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডর (পিএসপি) যুক্ত হচ্ছে।

সার্কুলারে বলা হয়, ইন্টারঅপারেবল ডিজিটাল ট্রানজেকশন প্লাটফর্ম (আইডিটিপি) ‘বিনিময়’ এর আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হচ্ছে আগামী রোববার (১৩ নভেম্বর)। বিনিময়ের মাধ্যমে সম্পাদিত লেনদেনে ফি এবং চার্জ নির্ধারণ করা হলো। বিনিময় ব্যবহার করে যে কোন অংকের প্রতিটি লেনদেনে অর্থ গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান প্লাটফর্মকে ৫০ পয়সা দেবে। ব্যাংক ছাড়া অন্যদের ইন্টারঅপারেবল চার্জ দিতে হবে, যা অর্থ গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান অর্থ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানকে দেবে। ইন্টারঅপারেবল ফি গ্রাহক থেকে নেওয়া যাবে না।

এতে আরও বলা হয়, তবে এমএফএস ও পিএসপির ক্ষেত্রে অর্থ গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান অর্থ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানকে শুণ্য দশমিক ৪৫ শতাংশ হারে চার্জ দেবে। আর এমএফএস ও পিএসপি থেকে ব্যাংক লেনদেনে গ্রাহক থেকে সর্বোচ্চ ১ শতাংশ ফি আদায় করা যাবে। এখানে কোনো ইন্টারঅপারেবল চার্জ লাগবে না। তবে পিএসপি টু পিএসপি ও এমএফএস লেনদেনে গ্রাহক থেকে নেওয়া যাবে সর্বোচ্চ শূণ্য দশমিক ৫০ শতাংশ। এক্ষেত্রে ইন্টারঅপারেবল চার্জ হিসেবে অর্থগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠান অর্থ প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানকে দেবে দশমিক ৭৫ শতাংশ হারে।

আরও দেখুন: গাড়ি ও ব্যক্তি ঋণে ১২% সুদ নিতে পারবে ব্যাংক

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button