সীমিত আকার ব্যাংকিং সেবার পরিধি বাড়লো

0
11782

করােনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সাধারণ ছুটির দিনগুলােতে সীমিত আকারে ব্যাংকিং সেবা চালু রাখার পরিধি আরও বাড়ানাে হয়েছে। নগদ জমা, নগদ উত্তোলন ও বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনের পাশাপাশি এখন ব্যাংকের শাখাগুলাে ডিমান্ড ড্রাফট (ডিডি), পে-অর্ডার ইস্যু করতে পারবে। এছাড়া একই ব্যাংকের একই শাখায় থাকা বিভিন্ন হিসাবের মধ্যে অর্থ স্থানান্তর করা যাবে। এ বিষয়ে বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে একটি সার্কুলার জারি করে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলাের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানাে হয়েছে।

সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলাের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা প্রদান, টাকা স্থানান্তর, ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখার সুবিধার্থে কেন্দ্রীয় ব্যাংক এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার এক সার্কুলারের মাধ্যমে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলােকে করােনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরােধে সাধারণ ছুটির দিনগুলােতে সীমিত আকারে ব্যাংকিং সেবা চালু রাখার নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর আলােকে শুধু নগদ টাকা জমা, নগদ উত্তোলন ও বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনের সেবা চালু রাখার নির্দেশনা দিয়েছিল। এছাড়া অনলাইন শাখাগুলাের মাধ্যমে অনলাইনে বিভিন্ন সেবা দেয়ারও নির্দেশনা রয়েছে। এ সিদ্ধান্ত ২৯ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত বহাল থাকবে।

ওই দিনগুলােতে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ব্যাংক লেনদেন হবে। লেনদেন পরবর্তী আনুষঙ্গিক কার্যক্রম শেষ করার জন্য ব্যাংক খােলা থাকবে বেলা দেড়টা পর্যন্ত। তবে ব্যাংকগুলাের সব শাখা খােলা থাকবে না, দূরত্ব বিবেচনায় প্রয়ােজনীয় শাখা খােলা রাখার সিন্ধান্ত নেবে ব্যাংকগুলাে।

ওই সময়ে সান্ধ্যকালীন ব্যাংকিং, শুক্র ও শনিবারের বিশেষ ব্যাংকিং সেবার কার্যক্রমও বন্ধ থাকবে। তবে সার্বক্ষণিকভাবে ব্যাংকের এটিএম বুথগুলাে খােলা থাকবে। এটিএম বুথগুলােতে পর্যাপ্ত নগদ টাকা সরবরাহ রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এছাড়া গ্রাহকরা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের অনুমােদিত বিভিন্ন অ্যাপসের মাধ্যমে লেনদেন বা কেনাকাটা করতে পারবেন। চালু থাকবে মােবাইল ব্যাংকিং সেবাগুলােও। অনলাইন লেনদেন চালু রাখার সুবিধার্থে ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইচ বাংলাদেশ (এনপিএসবি) ছুটিকালীন সার্বক্ষণিক চালু থাকবে। এর মধ্যে যেসব লেনদেন হবে সেগুলাের অর্থ দেনা পাওনার হিসাব সম্পন্ন হবে ছুটির পরের প্রথম কার্যদিবসে। এর ফলে গ্রাহকদের অনলাইনে ব্যাংকিং লেনদেনে কোনাে সমস্যা হবে না। সার্বক্ষণিক অনলাইন লেনদেন করা যাবে।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা প্রদানসহ বিভিন্ন ধরনের লেনদেন বাংলাদেশ ইলেকট্রনিক ফান্ড ট্রান্সফার নেটওয়ার্কের (বিইএফটিএন) মাধ্যমে সম্পন্ন হয়। এসব লেনদেন সম্পন্ন করার জন্য ১ ও ২ এপ্রিল বিইএফটিএন প্লাটফরমটি খােলা থাকবে।

তবে ছুটিকালীন বাংলাদেশ অটোমেটেড চেক প্রসেসিং সিস্টেমস (বিএসিপিএস) ও রিয়েল টাইম গ্রস সেটেলমেন্টের (আরটিজিএস) কার্যক্রম বন্ধ থাকবে। এর ফলে ওই সময়ে চেকের মাধ্যমে আন্তঃব্যাংক ব্যাংক বা আন্তঃশাখা কোনাে লেনদেন করা যাবে না। তবে চেক দিয়ে একই শাখা থেকে টাকা তােলা ও জমা দেয়া যাবে।

করােনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে আজ ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি থাকবে। এর মধ্যে আজ বুধবার ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের ছুটি, আগামী শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। রােববার ২৯ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি থাকবে। ৩ ও ৪ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটি।