টিআইবিঃ আসসালামু আলাইকুম। বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন। মার্কিন টেক জায়ান্ট অ্যাপল আইফোন প্রেমীদের সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে নতুন তিনটি আইফোন বাজারে নিয়ে এসেছে। ১২ সেপ্টেম্বর রাতে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার স্টিভ জবস থিয়েটারে অ্যাপলের পণ্য ঘোষণার অনুষ্ঠানে আইফোনপ্রেমীদের প্রত্যাশা পূরণ করে ঘোষণা দিয়েছে আইফোন এক্সএস, এক্সএএস ম্যাক্স ও আইফোন এক্সআর এর।

কি থাকছে নতুন আইফোনে?

আইফোন এক্সএস এবং আইফোন এক্সএস ম্যাক্স নিয়ে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে। তিনটি নতুন সংস্করণের মধ্যে আইফোন এক্সআর কম দামের। অ্যাপল বলছে স্মার্টফোনের ভবিষ্যতের জন্য একটি বড় ধরণের এক অগ্রগতি।

আইফোন এক্সএস এবং আইফোন এক্সএস ম্যাক্স এ যা যা থাকছেঃ

  • আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম‍্যাক্সের ডিভাইসের ডিসপ্লে সাইজ যথাক্রমে ৫ দশমিক ৮ ও ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি। ৪৫৮ পিপিআই ও এলইডি এইচডিআর ডিসপ্লে রয়েছে এতে।
  • আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্সে স্টেইনলেস স্টিল বডি থাকবে।
  • নতুন সংস্করণের আইফোন এক্সএস এবং আইফোন এক্সএস ম্যাক্স দুটোর ডিসপ্লে হবে আগের তুলনায় অনেক ঝকঝকে। এখানে সুপার রেটিনা ডিসপ্লে সংযোজন করা হয়েছে।
  • আইফোন এক্সএস এবং আইফোন এক্সএস ম্যাক্স পানি ঢুকবে না। দুই মিটার পানির নিচে ৩০ মিনিট পর্যন্ত থাকতে পারবে এগুলো।
  • প্রতিদিনের ব্যবহার সময় চা, কফি কিংবা অন্য কোন ধরনের তরল জিনিস ফোনের উপর পড়লেও কোন সমস্যা হবে না।
  • নতুন এ দুটো আইফোন সেটে ছবি, ভিডিও, ভিডিও এডিটিং এবং গ্রাফিক্স-এর জন্য ভালো ধারণ ক্ষমতা রয়েছে। এর ধারণ ক্ষমতা সর্বোচ্চ ৫১২ জিবি।
  • ৫১২ জিবিতে সর্বোচ্চ দুই লক্ষ ছবি রাখা যাবে। কারণ এখানে ব্যবহার করা হয়েছে এ১২ বায়োনিক চিপ। স্মার্টফোনের জগতে এটি সবচেয়ে উন্নত বলে বলছে অ্যাপল।
ছবিঃ এ১২ বায়োনিক
  • নতুন সংস্করণের আইফোনে ছবি তোলার পর সেটির ব্যাকগ্রাউন্ডের গভীরতা পরিবর্তন করা যাবে।
  • ব্যাটারির ক্ষমতা পুরনো সংস্করণের চেয়ে কিছুটা উন্নত। আইফোন এক্স-এর চেয়ে এক্সএস-এর ব্যাটারিতে চার্জ থাকবে ৩০ মিনিট বেশি। অন্যদিকে এক্সএস ম্যাক্স-এ ব্যাটারির চার্জ থাকবে দেড় ঘণ্টা বেশি।
  • আইফোন এক্সএস এবং এক্সএস ম্যাক্স পাওয়া যাবে ৬৪জিবি, ২৫৬জিবি এবং ৫১২জিবি। শুরুতে এর মূল্য হবে যথাক্রমে ৯৯৯ মার্কিন ডলার এবং ১০৯৯ মার্কিন ডলার।
  • সব ভেরিয়েন্টেই থাকবে ৪ জিবি র‍্যাম। নতুন দুটি ফোন IP 68 সার্টিফায়েড।
  • আইফোন এক্সএস এবং আইফোন এক্সএস ম্যাক্স-এ ১২ মেগাপিক্সেল-এর দুটো ক্যামেরা আছে।
  • এতে রয়েছে টুএক্স অপটিক্যাল জুম এবং ডুয়াল অপটিক্যাল ইমেজ স্ট্যাবিলাইজেশন। ফটোগ্রাফির জগতে এটি নতুন মাত্রা যোগ করবে বলে অ্যাপল জানিয়েছে।
  • শুধু ছবি নয়, উন্নত মানের ভিডিও ধারণ করা যাবে এ ফোন সেটের মাধ্যমে। ভিডিও ধারণের সময় নড়াচড়া হলেও ভিডিওতে সেটির প্রভাব পড়বে না এবং কম আলোতেও ভালো মানের ভিডিও ধারণ সম্ভব হবে। কারণ এখানে রয়েছে উন্নত মানের ইমেজ স্ট্যাবিলাইজার। ভিডিও’র শব্দ হবে উন্নত মানের।
  • নতুন আইফোন চলবে আইওএস ১২ অপারেটিং সিস্টেমে।

এক নজরে আইফোন এক্সএস এবং এক্সএস ম্যাক্সঃ

নতুন আইফোন কোথায় থেকে কিনবেন এবং এর দরদাম?

নতুন সংস্করণের আইফোন কেনার জন্য শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) থেকে বিশ্বের ৩০টি দেশে প্রি-অর্ডার করা যাবে। তবে অ্যাপল স্টোরে এ ফোনগুলো পাওয়া যাবে আগামী ২১ সেপ্টেম্বর থেকে।

আইফোন টেনএস এর দাম ধরা হয়েছে ৯৯৯ ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় (৮৩.৪১ প্রতি ডলার) প্রায় ৮৪ হাজার টাকা। আইফোন টেনএস ম্যাক্স এর দাম ১০৯৯ ডলার, বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৯২ হাজার এবং ২৫৬ জিবির আইফোন টেনআর এর দাম ধরা হয়েছে ৮৯৯ ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৭৫ হাজার।

১টি মন্তব্য

Leave a Reply