জেনে রাখতে পারেন ৬৪জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ যুক্ত কিছু স্মার্টফোন

0

টেকনো ইনফোঃ আসসালামু আলাইকুম। আশা করি সবাই ভাল আছেন। নতুন স্মার্টফোন কেনার কথা ভাবছেন। ভাল ক্যামেরা, র‍্যাম, স্টোরেজ এবং মধ্যম বাজেটের তবে আপনার জন্য আজকের পোস্ট।

মধ্যম বাজেটের স্মার্টফোনে আপনি ১২মেগাপিক্সল বা কোন কোন ফোনে তার থেকেও বেশি মেগাপিক্সালের ক্যামেরা পাবেন। আর এই স্মার্টফোন থেকে অনেক ভাল ভাল ছবি তোলা যায়। তাই এই সব ছবি গুলি স্টোর করতে অনেক বেশি জায়গা লাগে। আর অনেক সময় নতুন কোন ছবি স্টোর করার জন্য আমাদের আগের অনেক ছবি ডিলিট করে দিতে হয়। অনেক সময় স্টোরেজ বাঁচানোর জন্য আমাদের অনেক অ্যাপও ডিলিট করে দিতে হয়। আপনিও যদিও ফোনের স্টোরেজের এই ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হয়ে থাকেন তবে আমি আজ আপনাদের এখানে এমন কিছু ফোনের কথা বলব যার স্টোরেজ ৬৪জিবি। তবে আসুন দেখা যাক এরকম কয়েকটি স্মার্টফোন…

Xiaomo Mi A1:

Xiaomi Mi A1 ফোনটিতে ৬৪GB ইন্টারনাল আছে মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ১২৮GB অব্দি বাড়ানো যায়। Xiaomi Mi A1 ফোনে ২GHz অক্টা-কোর কোয়াল্কম স্ন্যাপড্র্যাগন ৬২৫ প্রসেসার আছে। আর এই ফোনের ক্যামেরা দেখলে দেখা যাবে যে এই ফোনে ১২মেগাপিক্সল ডুয়াল রেয়ার ক্যামেরা আর ৫মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। এই ফোনের ব্যাটারি ৩০৮০mAh এর। আই ফোনটি ডুয়াল সিম সাপোর্ট করে আর এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ৭.১.২ তে কাজ করে। এই ফোনের ডিসপ্লে ৫.৫০ ইঞ্চির আর এর রেজিলিউশান ১০৮০x১৯২০ পিক্সাল। আপনি এতে OTG সাপোর্ট পাবেন এটি একটি 4G VoLTE ফোন।

Xiaomi Redmi Note 4:

Xiaomi Redmi Note 4 ফোনটি তে কোম্পানি ৪জিবি র‍্যাম আর ৬৪জিবি’র ইন্টারনাল স্টোরেজ দিয়েছে। Xiaomi Redmi Note 4 এ ৫.৫ইঞ্চির ডিসপ্লে আছে। এই ডিসপ্লে ১০৮০x ১৯২০পিক্সাল রেজিলিউশান যুক্ত। ফোনটিকে শক্তিশালী করার জন্য এই ফোনে ৪১০০mAh এর ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এই ফোনটি ১৩মেগাপিক্সল রেয়ার আর ৫মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা যুক্ত। এই ফোনের স্টোরেজকে মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে বাড়ানো যায়। এই ফোনে হাইব্রিড সিম স্লট আছে। এটি অ্যান্ড্রয়েড v৬.০ তে কাজ করে আর এতে ২GHz অক্টা কোর প্রসেসার আছে।

Vivo V5s:

Vivo V5s ফোনে কোম্পানি ৬৪জিবি’র ইন্টারনাল স্টোরেজ দিয়েছে যা মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে বাড়ানো যায়। তবে এই ফোনটি একটি হাইব্রিড সিম স্লট যুক্ত ফোন। এই ফোনে 3G, ওয়াই-ফাই আর সাপোর্টের সঙ্গে 4G VoLTE’র সাপোর্ট ও আছে। এই ফোনটি ১.৫GHz অক্টা কোর প্রসেসদার যুক্ত। Vivo V5s ফোনে ৫.৫ইঞ্চির ডিসপ্লে আছে। এই ডিসপ্লের রেজিলিউশান ১২৮০x৭২০পিক্সাল। এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ৬.০ তে কাজ করে। এই ফোনের ব্যাটারি ৩০০০ mAh এর। এই ফোনের ক্যামেরা কেমন তা একবার দেখে নেওয়া যাক এই ফোনে ১৩মেগাপিক্সল রেয়ার আর ২০মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

Xiaomi Redmi 4:

Xiaomi Redmi 4 বাজারে তিনটি ভেরিয়েন্টে পাওয়া যায়। এই ফোনের সব থেকে শক্তিশালী ভেরিয়েন্টটিতে ৬৪জিবি’র ইন্টারনাল স্টোরেজ দেওয়া হয়েছে। এই ফোনের ব্যাটারি ৪১০০ mAh এর। এই ফোনটিতে ১.৪ GHz অক্টা-কোর প্রসেসার আছে। এই ফোনের ডিসপ্লে ৫ ইঞ্চির যার রেজিলিউশান১২৮০x৭২০পিক্সাল। এই ফোনটি ডুয়াল সিম সাপোর্ট করে। এটি একটি 4G VoLTE ফোন। Xiaomi Redmi 4 অ্যান্ড্রয়েড ৬.০.১ এ চলে। এই ফোনের ক্যামেরা কেমন তা একবার দেখে নেওয়া জক। এই ফোনে ১৩মেগাপিক্সল রেয়ার আর ৫মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

Gionee A1:

Gionee A1 ফোনটি ৬৪জিবির ইন্টারনাল স্টোরেজ যুক্ত। এই ফোনের র‍্যাম ৪জিবি। এই ফোনে ২GHz অক্টাকোর প্রসেসার আর ৫.৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে যুক্ত যার রেজিলিউশান ১০৮০x১৯২০ পিক্সাল। এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ তে কাজ করে। এর ব্যাটারি ৪০১০ mAh আর এর রেয়ার ক্যামেরা ১৩মেগাপিক্সল ও এর ফ্রন্ট ক্যামেরা ১৬মেগাপিক্সল।

Asus Zenfone 2 ZE551ML:

Asus Zenfone 2 ZE551MLস্মার্টফোনে ৬৪জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ আছে। Asus Zenfone 2 ZE551ML ২.৩ GHz কোয়াড কোর প্রসেসার আছে। Asus Zenfone 2 ZE551ML এ ৫.৫ইঞ্চির ১০৮০x১৯২০ পিক্সাল রেজিলিউশান যুক্ত। এই ফোনে অ্যান্ড্রয়েডv৫.০ তে কাজ করে। এই স্মার্টফোনের রেয়ার ১৩মেগাপিক্সল ও ৫মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ক্যামেরা যুক্ত।

Motorola Moto M:

ফোনে ইউজার্সরা ৬৪জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের সঙ্গে ৪জিবি র‍্যাম পাচ্ছে। মাইক্রোএসডি কার্ড দিয়ে যা ১২৮জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যায়।.এটি একটি 4G VoLTE ফোন।এর ব্যাটারি ৩০৫০ mAh । এই ফোনের রেয়ার ক্যামের ১৬মেগাপিক্সল আর ৮মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ক্যামেরা।

Lenovo K8 Note:

ফোনে কোম্পানি ৬৪জিবি’র ইন্টারনাল স্টোরেজ দিয়েছে যার র‍্যাম ৪জিবি আর এই ফোনটি ডুয়াল সিম সাপোর্ট করে। এই ফোনটি 3G সাপোর্ট করে আর এর সঙ্গে এটি 4G আর ওয়াই-ফাইও সাপোর্ট করে। কোম্পানি Lenovo K8 Note ফোনে একটি ৪০০০mAh এর ব্যাটারি দিয়েছে। এই ফোনটি ২.৩GHz ডেকা-কোর প্রসেসার যুক্ত। এর সঙ্গে এই ফোনের স্টোরেজকে মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে বাড়ানো যায়। এই ফোনটিতে ৫.৫ইঞ্চির ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। এই ডিসপ্লের রেজিলিউশান ১০৮০x১৯২০ পিক্সাল। এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড v৭.১.১ তে কাজ করে। এই স্মার্টফোনটিতে ১৩মেগাপিক্সলের ডুয়াল ক্যামেরা আছে আর এর সঙ্গে এই ফোনে ১৩মেগাপিক্সলের ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

Xiaomi Mi Max 2:

এই ফোনে ইউজাররা ৬৪জিবি এর সঙ্গে ৪জিবি’র র‍্যাম পাবে আর এই ফোনের রেয়ার ক্যামেরা ১২মেগাপিক্সল। আর এই ফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরার কথা যদি বলা যায় তবে এই ফোনে ৫মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে। আর এই ফোনে একটি ৫৩০০mAh এর ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে।

Asus Zenfone 4 Selfie:

এই ফোনে ইউজাররা ৪জিবি র‍্যামের সঙ্গে ৬৪জিবি’র ইন্টারনাল স্টোরেজ দেওয়া হয়েছে। এই ফোনে একটি ৩০০০mAh এর ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে। এই ফোনটিতে ১৬ মেগাপিক্সল রেয়ার ক্যামেরা আর ২০১৩মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ফেসিং ক্যামেরাও দেওয়া হয়েছে। এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড নৌগাটে কাজ করে।

Huawei Honor 8 Lite:

এই ফোনটিতেও ৬৪জিবি স্টোরেজ আছে। এই ফোনটি ২.১GHz অক্টা-কোর প্রসেসারে কাজ করে। এটি ডুয়াল সিম সাপোর্ট করে। এই ফোনে ৪জিবি র‍্যাম আছে। এই ফোনটি ৩০০০mAh এর ব্যাটারি যুক্ত।

Huawei Honor 6X:

এই ফোনটিতে ৩৩৪০mAh এর ব্যাটারি আছে। আর এই ফোনের স্টোরেজ ৬৪জিবি আর আই ফোনে ৪জিবি র‍্যাম দেওয়া হয়েছে। হুয়াইয়ের এই ফোনটিতে ১২মেগাপিক্সল ডুয়াল ক্যামেরা আছে আর এই ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরা ৮মেগাপিক্সল । এই ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড মার্শমেলোতে কাজ করে।

Oppo f1:

এই ডুয়াল সিম ফোনটিতে ৬৪জিবি স্টোরেজ আছে। এর ব্যাটারি ৩০৭৫mAh। আই ফোনটিতে ৫.৫ ইঞ্চির ফোনে একটি ১৩মেগাপিক্সল রেয়ার ক্যামেরা আর ১৬মেগাপিক্সল ফ্রন্ট ক্যামেরা আছে।

Samsung Galaxy On Next:

এই স্মার্টফোনটিতে ৬৪জিবি স্টোরেজ আছে এর র‍্যাম ৩জিবি আর এই ফোনের ব্যাটারি ৩৩০০mAh এর। এই ফোনইতে ৫.৫ ইঞ্চির ডিসপ্লে আছে আর এর রেয়ার ক্যামেরা ১৩মেগাপিক্সল আর এই ফোনের ফ্রন্ট ক্যামেরা ৮মেগাপিক্সল।

আশা করি পোস্টটি আপনাদের উপকারে আসবে।

Facebook Comments