সমন্বিত ৯ ব্যাংকের মৌখিক পরীক্ষার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

  1. ব্যাংকার্স সিলেকশন কমিটির সদস্যভুক্ত সমন্বিত ৯টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে অফিসার (সাধারণ) পদে ২ হাজার ৪৬ জন নিয়োগের জন্য লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মৌখিক পরীক্ষা আগামী রোববার শুরু, চলবে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত। প্রায় দুই মাসব্যাপী এ পরীক্ষার প্রথম দিকে যাঁদের সিরিয়াল পড়েছে, তাঁদের হাতে সময় খুবই কম। শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতির জন্য পরামর্শ দিয়েছেন বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক লিমিটেডে অফিসার পদে কর্মরত ও ৪০তম বিসিএসে (প্রশাসন ক্যাডার) সুপারিশপ্রাপ্ত আবদুল্লাহ আল মামুন।

সমন্বিত ৯টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অফিসার পদের লিখিত পরীক্ষার ফলাফল ৫ সেপ্টেম্বর প্রকাশিত হয়েছে। এতে উত্তীর্ণ হয়েছেন ৬ হাজার ২৪৭ জন। একটি পদের জন্য ভাইভা বোর্ডে বসবেন তিনজন। প্রতিদিন দুই শিফটে (সকাল ও বিকেল) মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। এক শিফটে প্রার্থীর সংখ্যা ৭৫ করে। সকালে যাঁদের পরীক্ষা তাঁরা তুলনামূলক সুবিধাজনক অবস্থায় থাকবেন। কারণ, তাঁরা ঘুম থেকে উঠে সতেজ অবস্থায় পরীক্ষা দিতে পারবেন।

টেকনো ইনফো বিডি‘র প্রিয় পাঠক: প্রযুক্তি, ব্যাংকিং ও চাকরির গুরুত্বপূর্ণ খবরের আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ টেকনো ইনফো বিডি তে লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন।

মৌখিক পরীক্ষার জন্য কোনো সিলেবাস থাকে না। তাই ভাইভা বোর্ডের সব প্রশ্নের উত্তর না পারাটাই স্বাভাবিক। ভাইভা বোর্ডে যেকোনো ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত রাখতে হবে। মৌখিক পরীক্ষায় সফল হওয়ার এটি অন্যতম পূর্বশর্ত। বিসিএসসহ অন্যান্য সরকারি চাকরির পরীক্ষার তুলনায় ব্যাংক নিয়োগ ভাইভাতে বণ্টন করা নম্বর কম থাকলেও এর গুরুত্ব অনেক।

কাগজপত্র গুছিয়ে সত্যায়িত করে রাখুন, কয়েকবার চেক করে নেবেন যাতে কোনো ভুল না হয়। গুরুত্বপূর্ণ কাগজপত্র যেমন স্থায়ী ঠিকানার চেয়ারম্যান/ কাউন্সিলর কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিকত্ব সনদ যাতে খুব বেশি পুরোনো তারিখের না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

সাধারণত ভাইভা বোর্ডে প্রবেশের প্রথমেই যে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়, তা হলো ‘আপনার নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন’। আপনার নাম, নামের অর্থ, বিখ্যাত কেউ এই নামে থাকলে তা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে যাবেন। নিজ বিশ্ববিদ্যালয় সম্পর্কে জানুন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস, ঐতিহ্য, স্নাতক ও স্নাতকোত্তরে পঠিত বিষয়ের মৌলিক উপাত্তগুলো সম্পর্কে সম্যক ধারণা থাকতে হবে।

ব্যাংক–সম্পর্কিত মৌলিক প্রশ্নগুলোর উত্তর জানতে হবে, যেমন—ব্যাংক কাকে বলে, বাণিজ্যিক ব্যাংক, তফসিলি ব্যাংক, দেশে রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংক, বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক, বিদেশি ব্যাংক, বিশেষায়িত ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মোট সংখ্যা, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে পার্থক্য, কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলতে কী বোঝায়, বাংলাদেশ ব্যাংকের কাজ কী কী, বাংলাদেশ ব্যাংকের বর্তমান গভর্নরের নাম ও নিকাশ ঘর প্রভৃতি।

ব্যাংকের দৈনিক বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম সম্পর্কে জানতে হবে, যেমন- গ্রিন ব্যাংকিং, স্কুল ব্যাংকিং, মোবাইল ব্যাংকিং, ইন্টারনেট ব্যাংকিং, অফশোর ব্যাংকিং, এজেন্ট ব্যাংকিং, এনপিএসবি, বিইফটিএন, আরটিজিএস, সিআইবি, বিভিন্ন ধরনের চেক ও অ্যাকাউন্ট, ব্যাংক ড্রাফট, বিভিন্ন ধরনের ঋণ হিসাব ও সঞ্চয়পত্র।

অর্থ-মুদ্রা, বাজার–সম্পর্কিত বিভিন্ন ধরনের তথ্য, যেমন— মুদ্রানীতি, মূল্যস্ফীতি, তারল্য সংকট, মূলধন বাজার, শেয়ার বাজার, ব্যাংক হার, সুদের হার, মুদ্রা পাচার, জিডিপি, জিএনপি, জিএনআই, এনএনআই, এনএনপি, ট্রেজারি চালান, বিশ্বব্যাংক, আইএমএফ, এসডিএর, এডিবি ও ব্রিকস সম্পর্কে পড়াশোনা করতে হবে।

আরও দেখুন: ব্যাংকের মৌখিক পরীক্ষার আগে যেসব বিষয় জানা জরুরি

বিভিন্ন দেশের (সার্কভুক্ত দেশ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া ও ইউক্রেন) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নাম জেনে যেতে পারেন। এ ছাড়া জাতির জনক, মুক্তিযুদ্ধ, ভাষা আন্দোলন, সংবিধান, বর্তমান সরকারের সাফল্য, সরকার গৃহীত মেগা প্রকল্পসহ এসডিজির লক্ষ্য অর্জনে অগ্রগতি ইত্যাদির ওপর প্রয়োজনীয় জ্ঞান থাকতে হবে।

যেসব ব্যাংক পছন্দের তালিকায় শুরুর দিকে রেখেছেন, সেসব ব্যাংক কেন শুরুর দিকে রেখেছেন, তা জেনে যেতে হবে। সেসব ব্যাংকের ইতিহাস, মিশন, ভিশন ও গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকা ব্যক্তিদের নাম ওয়েবসাইট থেকে দেখে যেতে পারেন। দুশ্চিন্তা ও অমূলক ভয় পরিহার করুন। ভাইভা দিতে গেলে ভয় পাওয়া স্বাভাবিক। এই ভয়কে যাঁরা জয় করতে পারবেন, তাঁরাই সফল হবেন। সবার জন্য শুভকামনা।

Leave a Reply

Back to top button