নগদ: ডাক বিভাগের মোবাইল ব্যাংকিং সেবা

0

দেশে দিন দিন বেড়েই চলেছে মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস। সহজ এবং দ্রুততম সময়ে এই ডিজিটাল ব্যাংকিং জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সকল শ্রেণীর মানুষের কাছে। আর এই ক্রমবর্ধমান ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস (ডিএফএস) বিপ্লবের নেতৃত্ব দেওয়ার লক্ষ্যে নগদ বাংলাদেশ ডাক বিভাগের একটি উদ্যোগ, যা জনগণের দৈনন্দিন আর্থিক লেনদেনের চাহিদাগুলোকে করবে একেবারেই ঝামেলাহীন।

নগদ কি?

‘নগদ’ বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ডিজিটাল ফাইন্যান্সিয়াল সার্ভিস। মানুষকে লেনদেনের স্বাধীনতা দেওয়ার লক্ষ্যে চালু হচ্ছে এই সেবা। ‘নগদ’ সেবা পরিচালিত হচ্ছে ‘বাংলাদেশ পোস্টাল অ্যাক্ট এমেন্ডমেন্ট ২০১০’ আইন অনুযায়ী। বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কর্তৃক ১১ অক্টোবর ২০১৮ সালে এই ডিজিটাল আর্থিক সেবা চালু করা হয়। ২০১৯ সালের ২৬ মার্চ, বাংলাদেশের ৪৯তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের মাধ্যমে এটি কার্যক্রম শুরু করে।

যে কোনো মোবাইল ফোনে নগদ (Nagad) অ্যাকাউন্ট খুলে একজন গ্রাহক দেশের যে কোনো স্থান থেকে নিজের মোবাইলে টাকা জমা, উত্তোলন এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে টাকা স্থানান্তরসহ বিভিন্ন বিল পরিশোধ করতে পারেন।

কেন নগদই সেরা?

বিকাশ বা অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এ যে সকল সুবিধা পেয়েছেন নগদে সেই একই সুবিধা পাবেন। তবে নগদে অন্যান্যের মতো অতিরিক্ত চার্জ নেই। বাংলাদেশে সকল জায়গায় অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর ব্যাংক শাখা নেই। কিন্তু সকল জায়গায় পোস্ট অফিস রয়েছে। আর পোস্ট অফিসে যে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে এটি আমরা অনেকেই জানিনা। অসাধারণ গ্রাহক সেবাই নগদ-কে করে তুলেছে অন্যদের চেয়ে আলাদা। উন্নত সেবাদানের মাধ্যমে দেশের আর্থিক বৈষম্য ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অবদান রেখে চলেছে নগদ।

নগদের সেবাসমূহঃ

নগদ একটি আধুনিক এবং নিরাপদ ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস যা ব্যবহারে ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট, সেন্ড মানি, মোবাইল রিচার্জসহ আপনার সকল দৈনিক লেনদেন হবে একেবারেই ঝামেলাহীন। নিচে কিভাবে কাজগুলো করবেন তা নিয়ে আলোচনা করবো।

১. ক্যাশ ইন:

ক্যাশ ইন সার্ভিস এর মাধ্যমে দেশের যেকোনো নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট থেকে আপনার নগদ অ্যাকাউন্টে টাকা জমা করতে পারবেন। এর জন্য যা করতে হবে-

• প্রথমে আপনার নিকটস্থ নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট ভিজিট করুন এবং কত টাকা ক্যাশ ইন করতে চান তা উদ্যোক্তাকে জানান।
• উদ্যোক্তার রেজিস্টার খাতায় টাকার পরিমান ও আপনার নগদ অ্যাকাউন্ট নাম্বার লিখুন।
• যে পরিমান অর্থ ক্যাশ ইন করতে চান তা উদ্যোক্তাকে পে করুন।
• উদ্যোক্তা আপনার নগদ অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠিয়ে দিবে।
• ক্যাশ ইন সম্পন্ন হলে আপনি এবং উদ্যোক্তা উভয়ই কনফার্মেশন এসএমএস পাবেন।

২. ক্যাশ আউট:

ক্যাশ আউট সার্ভিসের মাধ্যমে দেশের যেকোনো নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট হতে আপনার নগদ অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা উত্তোলন করতে পারবেন। ক্যাশ আউট করতে যা করবেন-

• আপনার নিকটস্থ নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্ট ভিজিট করুন এবং আপনার নগদ অ্যাকাউন্ট নাম্বার ও কি পরিমাণ অর্থ তুলতে চান তা উদ্যোক্তা রেজিস্টার খাতায় লিখুন।
• এরপর মোবাইল থেকে *১৬৭# ডায়াল করে “Cash-Out” এবং পরে “From Uddokta” অপশন সিলেক্ট করুন।
• উদ্যোক্তা আপনাকে যে নম্বরটি দিবেন সেটি এবং টাকার পরিমাণ প্রবেশ করুন।
• সবশেষে লেনদেন সম্পন্ন করতে আপনার নগদ মোবাইল মেন্যু পিন প্রদান করুন।
• ক্যাশ আউট সম্পন্ন হলে আপনি এবং উদ্যোক্তা উভয়েই একটি কনফার্মেশন মেসেজ পাবেন।

৩. সেন্ড মানি:

সেন্ড মানি সার্ভিসের মাধ্যমে আপনার নগদ অ্যাকাউন্ট থেকে অন্য কোনো নগদ অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠাতে পারবেন। এর জন্য যা করতে হবে-

• প্রথমে নগদ মোবাইল মেন্যু ওপেন করতে *১৬৭# ডায়াল করে “সেন্ড মানি” অপশন সিলেক্ট করুন।
• এরপর যাকে টাকা পাঠাতে চান তার নম্বর ও টাকার পরিমাণ লিখুন।
• এক শব্দের একটি রেফারেন্স দিন। (রেফারেন্স এর মাঝে কোনো স্পেস বা স্পেশাল চিহ্ন ব্যবহার করা যাবে না)।
• লেনদেন সম্পন্ন করতে আপনার নগদ মোবাইল মেন্যুতে পিন প্রদান করুন।
• সেন্ড মানি সম্পন্ন হলে আপনি একটি কনফার্মেশন মেসেজ পাবেন।

৪. মোবাইল রিচার্জ:

এই সার্ভিসের মাধ্যমে আপনার নগদ অ্যাকাউন্ট থেকেই মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন। যা করতে হবে-

• নগদ-এর মোবাইল মেন্যু ওপেন করতে
*১৬৭# ডায়াল করে “বাই এয়ারটাইম” অপশন সিলেক্ট করুন।
• এরপর যথাক্রমে আপনার “অপারেটর” এবং “কানেকশন টাইপ” নির্বাচন করুন।
• এবার আপনার ১১ ডিজিটের মোবাইল নম্বরটি প্রবেশ করুন।
• কি পরিমান রিচার্জ করতে চান তা লিখুন।
• লেনদেন সম্পন্ন করতে আপনার নগদ মোবাইল মেন্যুতে পিন প্রদান করুন।
• নগদ থেকে একটি কনফার্মেশন মেসেজ পাবেন।

নগদ থেকে নিম্নলিখিত মোবাইল অপারেটরগুলোতে মোবাইল রিচার্জসহ পোস্ট-পেইড বিল প্রদান করতে পারবেন- গ্রামীণফোন, রবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক এবং টেলিটক।

নগদ অ্যাকাউন্ট খোলার নিয়ম:

সহজ এবং দ্রুততম সময়ে মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস নগদ এর অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি সহ আপনার নিকটস্থ নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্টে যান।

নগদ অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য যা প্রয়োজন:
• আপনার মোবাইল,
• জাতীয় পরিচয়পত্র/স্মার্টকার্ড,
• জাতীয় পরিচয়পত্র/স্মার্টকার্ডের একটি ফটোকপি,
• সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ১ কপি ছবি।

নগদ অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য যা করতে হবে-
• প্রথমে উপরে বর্ণিত প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি সহ আপনার নিকটস্থ নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্টে যান।
• এরপর নগদ উদ্যোক্তার নির্দেশনা অনুযায়ী KYC ফরম পূরণ করুন।
• উপভোগ করুন নগদ মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস।

নগদ লেনদেন সীমাঃ

নগদ গ্রাহকের লেনদেনের লিমিটসমূহ নিম্নে তুলে ধরা হলো-

ক্যাশ ইন দৈনিক ২,৫০,০০০ টাকা (১০ বার) মাসিক ৫,০০,০০০ টাকা (৫০ বার)
ক্যাশ আউট দৈনিক ২,৫০,০০০ টাকা (১০ বার) মাসিক ৫,০০,০০০ টাকা (৫০ বার)
সেন্ডমানি (P2P) দৈনিক ২,৫০,০০০ টাকা (৫০ বার) মাসিক ৫০,০০,০০০ টাকা (১৫০ বার)

বি. দ্র. প্রতিবার সর্বোচ্চ ৫০,০০০ টাকা লেনদেন করা যাবে।

নগদ অ্যাপ ডাউনলোডঃ

• অ্যান্ড্রয়েড গ্রাহকরা নগদ অ্যাপ ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন।

নগদ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে কল করুন ১৬১৬৭ অথবা ০৯৬০৯৬১৬১৬৭ অথবা ভিজিট করুন https://nagad.com.bd/bn/home/

Leave a Reply