ফোনে ভাইরাস? দেখে নিন অ্যান্ড্রয়েড ফোন ভাইরাস মুক্ত করবেন যেভাবে

0
225

প্রযুক্তির কল্যাণে স্মার্টফোনের ব্যবহার বৃদ্ধির সাথে সাথে এর নিরাপত্তা ঝুঁকিও বাড়ছে একই হারে। আর স্মার্টফোনের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং বহুল ব্যবহৃত অপারেটিং সিস্টেম হল অ্যান্ড্রয়েড। বিশ্ববাজারে মোট স্মার্টফোনের তিন-চতুর্থাংশই এই অপারেটিং সিস্টেমের দখলে।

এত বিপুল পরিমাণ ব্যবহারকারী হওয়া সত্ত্বেও প্রায়শই এর নিরাপত্তায় আঘাত হানে বিভিন্ন ধরনের ম্যালওয়্যার বা ভাইরাস। প্রিয় পাঠকরা, পবিত্র ঈদ উপলক্ষে আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করবো স্মার্টফোনের ম্যালওয়্যার বা ভাইরাস সম্পর্কে একটি বিস্তারিত আলোচনা।

স্মার্টফোন ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে কিনা বুঝবেন যেভাবে?

অ্যান্ড্রয়েডে ভাইরাস কিংবা ম্যালওয়্যারের  আক্রমণ হলে সাধারণ কিছু বিষয় পরিলক্ষিত হয়। যেমন;
• অযাচিত বিজ্ঞাপন প্রদর্শিত হওয়া,
• ফোন স্লো কাজ করা,
• অযাচিত অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল হওয়া,
• দ্রুত চার্জ চলে যাওয়া,
• বারবার ডেটা এরর হতে দেখবেন,
• খুব তাড়াতাড়ি ডিভাইসের ব্যাটারির চার্জ শেষ হয়ে যাচ্ছে।

ভাইরাস আক্রান্ত হলে কি করবেন?

ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত হয়ে গেলে তা সরানোর বেশ কিছু পদ্ধতি রয়েছে।
• ফোনের সেটিংস থেকে  ইনস্টলড অ্যাপ অপশনে গিয়ে দেখতে হবে অযাচিত কোন অ্যাপ লিস্টে আছে কিনা। থাকলে তা আন ইনস্টল করে দিতে হবে।
• আন ইনস্টল করার অপশনটি কাজ না করলে সেটিংস থেকে ডিভাইস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অপশনে গিয়ে ‘অ্যাডমিন এক্সেস’ অপশনটি বন্ধ করে নিতে হবে। এরপর পুনরায় ইনস্টলড অ্যাপ অপশনে গিয়ে অযাচিত অ্যাপ আন ইনস্টল করে দিতে হবে।
• কোন ব্রাউজার আক্রান্ত হলে ব্রাউজারটি আন ইনস্টল করে পুনরায় ইনস্টল করতে হবে।
• উপরের পদ্ধতিতে অনেক ক্ষেত্রেই সমস্যা সমাধান হয়ে যায়। যদি তারপরেও সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে ফোনটি ফ্যাক্টরি রিসেট করে নিতে হবে। এই পদ্ধতিতে ফোনে রক্ষিত সকল ডেটা মুছে যাবে।
• অনেক ক্ষেত্রে ফোন রিসেট করার পরেও ম্যালওয়্যার থেকে যায়, তখন ফোনে নতুন করে অপারেটিং সিস্টেম ইনস্টল করা ছাড়া উপায় থাকে না। এই কাজটি ব্র্যান্ড ও মডেল বিশেষে নিজেও করা যায় কিংবা অনুমোদিত সার্ভিস সেন্টার থেকে সারিয়ে নেয়া যায়।

ভাইরাস আক্রমণ থেকে বাঁচার উপায়:

‘প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধ শ্রেয়’। কিছু সতকর্তা অবলম্বন করলে সহজেই ম্যালওয়ার বা ভাইরাস আক্রমণ থেকে নিরাপদ থাকা যায়।

প্লে স্টোর ব্যতীত অন্য কোন মাধ্যম থেকে অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টলের মাধ্যমেই মূলত অ্যান্ড্রয়েডে ম্যালওয়্যার বা ভাইরাস আক্রমণ করে। তাই কিছু সাবধানতা অবলম্বন করা যেতে পারে।
• সকল অ্যাপ্লিকেশন প্লে স্টোর থেকে ইনস্টল করা।
• থার্ড পার্টি অ্যাপ্লিকেশন স্টোর কিংবা অন্য কারো ফোন থেকে শেয়ারিংয়ের মাধ্যমে অ্যাপ ইনস্টল থেকে বিরত থাকা।
• সিকিউরিটি আপডেটসহ অন্যান্য সকল আপডেট ইনস্টল করা।
• ইন্টারনেট ব্যবহার করার সময় চটকদার কোন বিজ্ঞাপন এড়িয়ে চলা।
• অযাচিত কোন লিংকে ক্লিক না করা।

Leave a Reply