আর্থিক প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের ঋণ পুনঃতফসিলের শর্ত শিথিল

আর্থিক প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের ঋণ/লিজ/ বিনিয়োগ পুনর্গঠন ও পুনঃতফসিলের শর্ত শিথিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) অতিমারির দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব এবং বহিঃবিশ্বে যুদ্ধাবস্থাসহ বিশেষ পরিস্থিতি বিবেচনায় এই শর্ত শিথিল করা হয়েছে বলে বাংলাদেশ ব্যাংকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

টেকনো ইনফো বিডি‘র প্রিয় পাঠক: প্রযুক্তি, ব্যাংকিং ও চাকরির গুরুত্বপূর্ণ খবরের আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ টেকনো ইনফো বিডি তে লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন নির্দেশনা অনুসারে, পুনঃতফসিলের ক্ষেত্রে প্রথম দফা মোট বকেয়ার ৪% অথবা মেয়াদোত্তীর্ণ কিস্তির কমপক্ষে ৭%, এই দুইয়ের মধ্যে যা কম, সে পরিমাণ অর্থ ডাউনপেমেন্ট দিতে হবে।

দ্বিতীয় দফা ডাউন পেমেন্টের পরিমাণ হবে মোট বকেয়ার ৫% অথবা, মেয়াদোত্তীর্ণ কিস্তির অন্যূন ৮%, এই দুইয়ের মধ্যে যা কম।

তৃতীয় দফা মোট বকেয়ার ৬% অথবা, মেয়াদোত্তীর্ণ কিস্তির অন্যূন ৯%, এই দুইয়ের মধ্যে যা কম- সে পরিমাণ অর্থ ডাউন পেমেন্ট দিতে হবে।

চতুর্থ দফা পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে তৃতীয় দফা পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের অনুরূপ ডাউনপেমেন্ট ও মেয়াদ প্রযোজ্য হবে।

পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের মেয়াদ হবে গ্রাহককে প্রদত্ত মঞ্জুরীপত্রের (Sanction Letter)) তারিখ হতে নিম্নরূপ-

(১) প্রথম দফা পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৬ বছর বা ৭২ মাস।

(২) দ্বিতীয় দফা পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৫ বছর বা ৬০ মাস।

(৩) তৃতীয় দফা পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৫ বছর বা ৬০ মাস।

অন্য কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান/ব্যাংক কর্তৃক পুনঃতফসিলকৃত ঋণ অধিগ্রহণ (Sanction Letter))-এর মাধ্যমে কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে স্থানান্তরিত হয়েছে এরূপ ঋণ পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনে পূর্ববর্তী প্রতিষ্ঠানের পুনর্গঠন/পুনঃতফসিলকরণের ক্রম প্রযোজ্য হবে। এ লক্ষ্যে, পুনঃতফসিল/পুনর্গঠন প্রস্তাব মূল্যায়নকালে আর্থিক প্রতিষ্ঠান গ্রাহকের নিকট হতে ঘোষণাপত্র সংগ্রহ করবে এবং তা যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে নিশ্চিত হবে।

রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংক এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে। আজই তা দেশের সব আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীর কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্কুলারে বলা হয়েছে, সম্প্রতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, কোভিড-১৯ এর দীর্ঘমেয়াদি নেতিবাচক প্রভাব, বহিঃবিশ্বে যুদ্ধাবস্থাসহ নানাবিধ নিয়ন্ত্রণ বহির্ভূত কারণে ক্ষুদ্র, বৃহৎ, মাঝারি ঋণগ্রহীতা ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নগদ প্রবাহ বিরূপভাবে প্রভাবিত হওয়ায় কোন কোন ক্ষেত্রে বিদ্যমান নীতিমালা অনুযায়ী ঋণ পুনঃতফসিল/পুনর্গঠন করা সম্ভব হচ্ছে না। এরূপ পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত গ্রাহকের ঋণ পরিশোধ সহজীকরণের মাধ্যমে আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের শ্রেণিকৃত ঋণের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার স্বার্থে বিদ্যমান নীতিমালায় বর্ণিত ডাউনপেমেন্ট ও মেয়াদ যৌক্তিক করে এ নীতিমালা জারি করা হলো।

সার্কুলার অনুসারে, কেবলমাত্র বিরূপমানে (নিম্নমান, সন্দেহজনক, মন্দ/ক্ষতি) শ্রেণিকৃত ঋণ/লিজ/বিনিয়োগ পুনঃতফসিল করা যাবে এবং Standard ev Special Mention Account (SMA) মানে রয়েছে এরূপ ঋণ/লিজ/বিনিয়োগ হিসাব পুনর্গঠন করা যাবে।

পুনঃতফসিল/পুনর্গঠন এর আবেদন বিবেচনার ক্ষেত্রে নিচের নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে-

(ক) ক্ষুদ্র/মাঝারি/বৃহৎ সকল শ্রেণির গ্রাহকের জন্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে এ নীতিমালা প্রযোজ্য হবে।

(খ) এ নীতিমালার আওতায় ঋণ/লিজ/বিনিয়োগ পুনঃতফসিল/পুনর্গঠন এর ক্ষেত্রে গ্রাহকের ব্যবসায়িক কার্যক্রম হতে উৎসারিত নগদ প্রবাহ ((Business Cash Flow)), আর্থিক বিবরণী (Financial Statements), ঋণ বিতরণকালীন নিয়মাচার পরিপালন (Due Diligence), গ্রাহক প্রতিষ্ঠানের অস্তিত্ব, জামানত, ঋণের সদ্ব্যবহার যাচাই ইত্যাদি নিশ্চিত করতে হবে।

(গ) ঋণ/লিজ/বিনিয়োগ পুনঃতফসিল/পুনর্গঠন সংক্রান্ত বিষয়ে আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের পরিচালনা পর্ষদের অনুমোদিত নীতিমালা থাকতে হবে। উক্ত নীতিমালা এ সার্কুলারে বর্ণিত নিয়মাবলীর চেয়ে সহজতর হবে না।

(ঘ) আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের ক্রেডিট কমিটি লিখিত প্রতিবেদনের মাধ্যমে ঋণ/লিজ/বিনিয়োগ হিসাব পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করবে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানের তারল্য এবং অন্যান্য গ্রাহকের চাহিদার উপর ঋণ/লিজ/বিনিয়োগ হিসাব পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের প্রভাবও ক্রেডিট কমিটি তাদের প্রতিবেদনে বিস্তারিত লিপিবদ্ধ করবে।

(ঙ) ঋণ/লিজ/বিনিয়োগ পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনের সিদ্ধান্ত অনুমোদনের ক্ষেত্রে পর্ষদকে ঋণের সদ্ব্যবহার সম্পর্কে নিশ্চিত হতে হবে।

(চ) কোন গ্রাহক কর্তৃক প্রয়োজনীয় ডাউনপেমেন্টের অর্থ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবে জমা হওয়ার

তিন মাসের মধ্যে আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহ ঋণ/লিজ/বিনিয়োগ হিসাব পুনঃতফসিলিকরণের বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে। ঋণ/লিজ/বিনিয়োগের কিস্তি বা এর অংশ হিসেবে আদায়কৃত অর্থ ডাউনপেমেন্ট হিসেবে প্রদর্শন করা যাবে না।

আরও দেখুন: আন্তঃব্যাংকে বিদেশি মুদ্রার তাৎক্ষণিক লেনদেন চালু

(ছ) ঋণ পুনঃতফসিল/পুনর্গঠনকালে স্বল্পমেয়াদি/এক বছরের বা তার কম মেয়াদের জন্য প্রদত্ত ঋণকে দীর্ঘমেয়াদি ঋণে রূপান্তরের প্রয়োজনীয়তা দেখা দিলে রূপান্তরের কারণ ও যৌক্তিকতা প্রস্তাবে সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করতে হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button