মেয়াদি ঋণেও ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম চালু

1

কুটির, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র (সিএমএস) উদ্যোক্তাদের জন্য অর্থায়ন প্রক্রিয়াকে সহজ করতে প্রথমবারের মতো চলতি মূলধন ঋণের বিপরীতে ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম (সিজিএস) চালু করে বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে করোনা মহামারির কারণে এখন থেকে সরকার ঘোষিত ২০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজের আওতায় মেয়াদি ঋণেও এই সিজিএস সুবিধা দেওয়া হবে।

এছাড়া অংশগ্রহণকারী ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান গ্যারান্টি রেজিস্ট্রেশনের জন্য প্রতি মাসের ১৫ তারিখ পর্যন্ত সময় পাবেন।

আজ সোমবার (০১ ফেব্রুয়ারি) বাংলাদেশ ব্যাংকের এসএমই এন্ড স্পেশাল প্রোগ্রামস ডিপার্টমেন্টের ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম ইউনিট থেকে এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করে দেশের সকল তফসিলি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের নিকট পাঠানো হয়েছে।

সার্কুলারে বলা হয়, ক্রেডিট গ্যারান্টি সুবিধা কুটির, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র (সিএমএস) উদ্যোগ খাতে শুধুমাত্র চলতি মূলধনের জন্য উন্মুক্ত ছিল। সমগ্র সিএমএসএমই খাতে কোভিড-১৯ এর বিরূপ প্রভাব পড়েছে। এজন্য কুটির, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা অনেক সময় চলতি মূলধন ঋণ গ্রহণ না করে শুধুমাত্র স্বল্প মেয়াদি ঋণ/বিনিয়োগ সুবিধা গ্রহণ করে থাকেন। বর্ণিত প্রেক্ষাপট বিবেচনায় আলোচ্য ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিমের সুবিধা চলতি মূলধনের পাশাপাশি মেয়াদি ঋণ/বিনিয়োগের জন্যও প্রযোজ্য হবে।

এতে আরও বলা হয়, অংশগ্রহণকারী ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহ কর্তৃক প্রতি মাসের প্রথম ১০ কার্যদিবসের মধ্যে গ্যারান্টি রেজিস্ট্রেশনের জন্য আবেদন করার সুযোগ রয়েছে। বর্ণিত আবেদনপত্র দাখিলের জন্য সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র/নথিপত্র প্রস্তুত করার কিছুটা সময়ের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে মর্মে প্রতিভাত হওয়ায় এখন থেকে প্রতি মাসের ১৫ তারিখের মধ্যে উক্ত গ্যারান্টি রেজিস্ট্রেশনের আবেদন করা যাবে।

ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৪৫ ধারা এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান আইন, ১৯৯৩ এর ১৮ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে এ নির্দেশনা জারি করা হয়েছে বলেও সার্কুলারে উল্লেখ করা হয়েছে। এ নির্দেশনা অবিলম্বে কার্যকর হবে।

প্রসঙ্গত, প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় কুটির, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র শিল্প (সিএমএসই) বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর বিতরণ করা ঋণের গ্যারান্টি দিতে ক্রেডিট গ্যারান্টি স্কিম চালু করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর আওতায় সিএমএসইতে বিতরণ করা ঋণ আদায় না হলে কেন্দ্রীয় ব্যাংক মূল ঋণের সর্বোচ্চ ৮০ শতাংশ পর্যন্ত পরিশোধ করবে।

>> এ সংক্রান্ত সম্পূর্ণ সার্কুলার দেখতে ক্লিক করুন এখানে

1 COMMENT

Leave a Reply