গ্রামীণ ব্যাংক কর্মকর্তাকে ৪ কোটি ৯৪ লাখ টাকা অর্থদণ্ড

0

৪৭৬ জন আমানতকারীর স্বাক্ষর জাল করে চার কোটি ৯৪ লাখ ২২ হাজার ২৩৮ টাকা আত্মসাতের দায়ে বরিশালে গ্রামীণ ব্যাংকের এক কর্মকর্তাকে সমপরিমাণ অর্থদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

গতকাল মঙ্গলবার (১৫ ডিসেম্বর) বিকেলে বরিশাল বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক মো. মহসিনুল হাকিম আসামির অনুপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম দেলোয়ার হাসান। তিনি যশোরের ছাতিয়ানতলার জয়নাল আবেদিন দফাদারের ছেলে এবং গ্রামীণ ব্যাংক বরিশাল সদর উপজেলার রায়পাশা শাখার সাবেক ব্যবস্থাপক।

বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতের বেঞ্চ সহকারী (পেশকার) হারুন আর রশিদ রায়ের বরাত দিয়ে জানান, ২০১০ সালের ১ আগস্ট থেকে ২০১১ সালের ১১ ডিসেম্বর পর্যন্ত দেলোয়ার হাসান গ্রামীণ ব্যাংক বরিশাল সদর উপজেলার রায়পাশা শাখায় ব্যবস্থাপক থাকাকালীন ৪৭৬ জন আমানতকারীর ব্যাংকে জমা করা চার কোটি ৯৪ লাখ ২২ হাজার ২৩৮ টাকা স্বাক্ষর জাল করে উত্তোলনের মাধ্যমে আত্মসাৎ করেন।

এ ঘটনায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) বরিশাল কার্যালয়ের তৎকালীন উপ-পরিচালক আর কে মজুমদার ২০১২ সালের ৩০ জুলাই দেলোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

পরবর্তীতে ব্যবস্থাপক দেলোয়ার হাসানকে অভিযুক্ত করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপ-পরিচালক মো. মতিউর রহমান আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন। আটজনের সাক্ষ্য নেয়া শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় দেলোয়ার হোসেনকে সাত বছর কারাদণ্ড এবং আত্মসাৎ করা টাকার সমপরিমাণ অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।

Leave a Reply