আইওএস

কবে আসবে ভাঁজ করা আইফোন?

টিআইবিঃ প্রতিদিনই মোবাইল প্রযুক্তির নিত্য নতুন উন্নতি সংগঠিত হচ্ছে। আর এবার শুরু হয়েছে ফোল্ডেবল বা ভাঁজ করা যায় এমন মোবাইল নিয়ে আলোচনা। চলতি বছরেই এমন ফোন বাজারে আনতে পারে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। বাজারে প্রথম ভাঁজ করা ডিসপ্লে সুবিধাযুক্ত স্মার্টফোন আনতে কাজ করছে বিশ্বের শীর্ষ স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

টেকনো ইনফো বিডি‘র প্রিয় পাঠক: প্রযুক্তি, ব্যাংকিং ও চাকরির গুরুত্বপূর্ণ খবরের আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ টেকনো ইনফো বিডি তে লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন।

স্যামসাংকে টেক্কা দিতে অ্যাপল কিছু করবে না? এমনটি কি কখনো হয়? বাজার বিশ্লেষকেরা ধারণা করছেন, স্যামসাংয়ের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে অ্যাপল বিশেষ পরিকল্পনা করছে। স্যামসাং যে ধরনের ভাঁজ করা ফোন আনবে, তার চেয়ে অন্য রকম ভাঁজ করা ফোন বাজারে ছাড়বে অ্যাপল। তবে অ্যাপলের নতুন সে আইফোন বাজারে আসতে দেরি হবে।

বাজার বিশ্লেষকেরা বলছেন, ভাঁজ করা আইফোনের নকশা বা প্রোটোটাইপ নিয়ে কাজ করা শুরু করেছে মার্কিন প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি। স্যামসাংয়ের ভাঁজ করা স্মার্টফোনটি ভেতরের দিকে ভাঁজ হবে আর আইফোন ভাঁজ হবে বাইরের দিকে। ভেতরের দিকে ভাঁজ করা স্মার্টফোন তৈরি তুলনামূলকভাবে সহজ। কিন্তু অ্যাপল যে প্রোটোটাইপ নিয়ে কাজ করছে, তা তৈরি করার কঠিন। এ ছাড়া এই মডেল কতটা টেকসই হবে, তা নিয়েও প্রশ্ন রয়েছে। তবে অ্যাপল ওই কঠিন পথেই যাবে।

প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইটগুলোয় বলা হচ্ছে, অ্যাপল এর মধ্যে ভাঁজ করা আইফোনের জন্য পেটেন্টের অনুমোদন পেয়েছে। এর পাশাপাশি স্মার্টফোনে ফ্রেবিক ও ফোল্ডেবল হিঞ্জ ব্যবহারের পেটেন্টও পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। যুক্তরাষ্ট্রের পেটেন্ট অফিস অ্যাপলকে নতুন ফোন তৈরির যে পেটেন্টের অনুমোদন দিয়েছে, তাতে আইফোন বইয়ের মতো ভাঁজ করে রাখা যাবে এবং খোলা যাবে।

ভাঁজ করা নতুন আইফোনের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলেনি অ্যাপল। তবে এ ধরনের আইফোন পেতে আরও কয়েক বছর অপেক্ষায় থাকতে হবে অ্যাপলপ্রেমীদের। ২০২০ সালে হয়তো এ ধরনের আইফোন বিষয়ে মুখ খুলতে পারে অ্যাপল কর্তৃপক্ষ।
তথ্যসূত্র: ডিজিটাল ট্রেন্ডস।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button