আইওএস

যে কারণে অ্যাপলে ৫জি আসতে দেরি হবে?

টিআইবিঃ নতুন প্রযুক্তি নিয়ে সব সময়ই সরগরম থাকে প্রযুক্তি বিশ্ব। এরই ধারাবাহিকতায় ফোল্ডেবল এবং ৫জি প্রযুক্তির স্মার্টফোন নিয়ে প্রযুক্তি জগৎ বেশ সরব। স্যামসাং, হুয়াওয়ে এবং মটোরোলা এরই মধ্যে ফোল্ডেবল ও ৫জি প্রযুক্তির স্মার্টফোন প্রদর্শন করেছে। কিন্তু বিশ্বের শীর্ষ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপল এখনও পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনও ঘোষণা দেয়নি।

টেকনো ইনফো বিডি‘র প্রিয় পাঠক: প্রযুক্তি, ব্যাংকিং ও চাকরির গুরুত্বপূর্ণ খবরের আপডেট পেতে আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ টেকনো ইনফো বিডি তে লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন।

ম্যাকরিউমার্স (ম্যাক এবং অ্যাপল সম্পর্কিত তথ্য সরবরাহকারী) এর বরাত দিয়ে ভারতীয় প্রযুক্তিভিত্তিক গণমাধ্যম গেজেটস নাউ জানিয়েছে, ২০২০ সালের আগে অ্যাপলের কোনও ৫জি প্রযুক্তির ফোন আসবে না।

এ খবর শুনে স্বাভাবিকভাবেই কিছুটা হতাশ হচ্ছেন আইফোন প্রেমীরা। পাশাপাশি আইফোনে ৫জি আসতে কেন এতো দেরি হবে সেটাও জানতে চাচ্ছেন। গ্রাহকদের কৌতূহল মেটাতে ব্রিটিশ আর্থিক প্রতিষ্ঠান বার্কলেস-এর গবেষণার ভিত্তিতে আইফোনে ৫জি দেরিতে আসার প্রধান দুটি কারণ চিহ্নিত করেছে ম্যাকরিউমার্স।

প্রথমত, আইফোনের জন্য ৫জি মডেম তৈরি করতে গত নভেম্বরে ইন্টেলকে অনুরোধ করে অ্যাপল। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি চলতি বছরের শেষে এ ধরনের মডেম তৈরি করতে পারবে, তার আগে নয়। ফলে অ্যাপলের ৫জি ফোন আসতে সময় লাগবে।

দ্বিতীয়ত, কোয়ালকমের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে না অ্যাপলের। এ কারণে কোয়ালকমের ৫জি মডেম তৈরি থাকলেও অ্যাপল তা নিতে পারছে না। বর্তমানে অ্যাপল এবং কোয়ালকমের মধ্যে মামলা চলছে। যতদিন এর সুরাহা না হবে ততদিন কোয়ালকমের তৈরি ৫জি মডেম ব্যবহার করতে পারবে না অ্যাপল।

এ দুই কারণে ধরে নেয়া হচ্ছে ২০২০ সালের আগে ৫জি ফোন পাবেন না আইফোন প্রেমীরা।

Leave a Reply

Back to top button