টেকনো ইনফোঃ আসসালামু আলাইকুম। সদ‍্যই শেষ হল অ্যাপলের বার্ষিক ডেভেলপার কনফারেন্সে ২০১৮। ধারণা করা হয়েছিল অ্যাপলের বার্ষিক এই ডেভেলপার কনফারেন্সে নতুন ম্যাকবুকের ঘোষণা দেওয়া হবে। কিন্তু হতাশ হতে হয়েছে ম্যাকবুকভক্তদের। তবে নতুন ম্যাকবুক না আনলেও ম্যাকওএসের নতুন সংস্করণ এনেছে অ্যাপল। নতুন ম্যাকওএস ১০.১৪ সংস্করণের নামকরণ হয়েছে উত্তর আমেরিকার মরুভূমি ‘মোহাভি’-এর নামে। বেশ কিছু নতুন ফিচার যুক্ত করা হয়েছে এতে।

ম্যাকওএস-এর সর্বশেষ সংস্করণ এর মাধ্যমে নতুন একটি ‘ডার্ক মোড’ উন্মোচন করা হয়েছে। এটি ডেস্কটপে নতুন এক চেহারা নিয়ে আসবে যা ব্যবহারকারীদের কনটেন্টের উপর জোর দিয়ে করা হয়েছে।

“ম্যাকওএস মোহাভি একটি বড় আপডেট যা ভোক্তা থেকে শুরু করে পেশাদার, একটি বিস্তৃত পরিসরের ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য শক্তিশালী নতুন সব ফিচার এনেছে।”

আসুন দেখে নিই কী কী নতুন ফিচার থাকছে ম্যাকওএস এর সর্বশেষ সংস্করণে।

ডার্ক মুডঃ

ডার্ক মুডটি চালু করলে ডক, টাস্কবার ও সব অ্যাপ্লিকেশন কালো রঙে ধারণ করবে, যা অনেকটা উইন্ডোজের থিম অপশনের মতোই কাজ করবে। ফলে রাতে ম্যাকওএস চালিত ডিভাইস ব্যবহার করলে অতিরিক্ত আলো চোখে পড়বে না ব্যবহারকারীদের।

ম্যাক অ্যাপ স্টোরের রিডিজাইনঃ

দীর্ঘ দিন পর ম্যাক অ্যাপ স্টোর রিডিজাইন করেছে অ্যাপল, যা দেখতে গত বছর উন্মোচন হওয়া আইওএস স্টোরের মতোই। ম্যাক অ্যাপ স্টোরে রয়েছে ‘কলিং আউট’ ফিচার। সেখানে নতুন অ্যাপগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাবে।

অ্যাপ স্টোরে থাকা ‘ডিসকভার’ ট্যাব থেকে প্রতি সপ্তাহে সবচেয়ে জনপ্রিয় অ্যাপ খুঁজে পাওয়া যাবে। এ ছাড়া ব্যবহারকারীরা ডাউনলোডের আগে অ্যাপটি সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিতে পারবেন প্রিভিউ ভিডিও থেকে।

স্ক্রিনশটসঃ

বিভিন্ন কাজে অনেক সময় স্ক্রিনশট নেওয়ার প্রয়োজন হয়। ম্যাকওএসে আগে থেকেই ডিফল্ট স্ক্রিনশট নেওয়ার সুবিধা ছিল, তবে তা সম্পাদনার ব্যবস্থা ছিল না। এ জন্য প্রয়োজন হতো থার্ডপার্টি অ্যাপের। নতুন ম্যাকওএসে স্ক্রিনশট নেওয়ার পর থার্ডপার্টি অ্যাপ ছাড়াই তা সম্পাদনা করার ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। ফলে সহজেই স্ক্রিনশট সম্পাদনা করা যাবে।

নিরাপত্তা নিয়ন্ত্রণঃ

নিরাপত্তার দিকে বেশ নজর দেওয়া হয়েছে এই নতুন ম্যাকবুক ওএসে। ম্যাকবুকে ইনস্টল করা কোনো অ্যাপ ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে কী তথ্য নেয়, তা পপআপ নোটিফিকেশনের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে। ফলে ব্যবহারকারীরা কোন তথ্য দেবেন বা দেবেন না, তা নির্ধারণ করার নিয়ন্ত্রণ পাবেন। এমন সুবিধা আগে আইওএস অপারেটিং সিস্টেমেও এনেছিল অ্যাপল।

এদিকে ফেইসবুক, গুগল ও অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের ব্যবহারকারীদের গতিবিধির ওপর ‘লাইক’ ও ‘শেয়ার’ বাটনের মাধ্যমে নজর রাখে। ক্লিক না করলেও সর্বত্রই ব্যবহারকারীকে এগুলো অনুসরণ করে বেড়ায়।

তাই সাফারি ব্রাউজারে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের তথ্য সংগ্রহের টুল বন্ধ করার অপশন যুক্ত হয়েছে। ওয়েব ব্রাউজার ‘সাফারি’ ব্যবহারকারী কোনো ওয়েবপেইজে গেলে একটি উইন্ডো পপআপ হবে। সেখানে ব্যবহারকারীকে প্রশ্ন করা হবে—আপনি কি ফেইসবুককে কুকিজ ও ওয়েবসাইটের ডাটা ব্যবহারের অনুমতি দিতে চান? অনুমতি না দিলে ফেইসবুক তখন আর ব্যবহারকারীর গতিবিধি ট্র্যাক করতে পারবে না।

ডেস্কটপ স্টেকসঃ

অনেক ম্যাকবুক ব্যবহারকারীর হোম স্ক্রিনে একাধিক ফাইল এলোমেলো অবস্থায় থাকে। এই সমস্যা সমাধানে মোহাভিতে আনা হয়েছে ডেস্কটপ স্টেকস ফিচার। এটির সাহায্যে ডেস্কটপে রাখা ফাইলগুলো ফরম্যাট অনুযায়ী ফোল্ডার তৈরি করবে।

ধরুন, আপনার ডেস্কটপে একাধিক ছবি, ভিডিও ও অডিও ফাইল রয়েছে। তাহলে হোম স্ক্রিনেই আলাদা তিনটি ফোল্ডার তৈরি হবে। তারপর ছবি, ভিডিও ও অডিও ফাইলগুলো ফরম্যাট অনুযায়ী আলাদা ফোল্ডারে সংরক্ষিত হবে। আর সম্পূর্ণ কাজটি হবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে। ম্যাকবুকের হোম স্ক্রিনে কোনো ফাইল রাখলেই তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফাইলের ফরম্যাট অনুযায়ী নির্দিষ্ট ফোল্ডারে চলে যাবে।

ফাইন্ডার আপডেটঃ

ফোল্ডারে থাকা বিভিন্ন ফাইল ওপেন করার আগে প্রিভিউ দেখে নেওয়ার সুবিধা যুক্ত করা হয়েছে ম্যাকবুক ফাইন্ডারে। ‘গ্যালারি ভিউ’ নামে ফিচারটিতে স্ক্রল করে যেকোনো ফাইল নির্বাচন করলে ছোট প্রিভিউ দেখা যাবে। এ ছাড়া গ্যালারি ভিউয়ের মাধ্যমে কোনো ফাইল সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে হলে ‘get more info’ অপশনে যেতে হবে না। প্রিভিউয়ের ডান পাশেই ফাইলটি সম্পর্কে প্রয়োজনীয় তথ্য দেখা যাবে।

অ্যাপল নিউজ ও ভয়েস মিমোস অ্যাপঃ

সংবাদের প্রতি কমবেশি সবারই আগ্রহ আছে। তাই আইওএসের পাশাপাশি ম্যাকওএসের জন্য অ্যাপল নিউজ অ্যাপের সংস্করণ আনা হয়েছে। অ্যাপটি ব্যবহার করে একত্রে বিশ্বের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম পড়া যাবে ম্যাকবুকে। এ ছাড়া দ্রুত ভয়েস কমান্ডের মাধ্যমে কোনো তথ্য সংরক্ষণের জন্য আনা হয়েছে ‘মিমোস অ্যাপ’।

কবে পাবেন ম্যাকওএস আপডেট?

সাধারণত অ্যাপলের ম্যাকওএস ঘোষণার চার-পাঁচ মাস পর সব ব্যবহারকারীর জন্য উন্মোচন করা হয়। তাই ধারণা করা হচ্ছে, সেপ্টেম্বর বা অক্টোবর মাসে সব ব্যবহারকারীর কাছে পৌঁছে যাবে নতুন আপডেট। তবে ডেভেলপাররা এরই মধ্যে আপডেট পেয়ে গেছেন।

যে যে ডিভাইসে পাওয়া যাবে?

২০১২ সাল ও তার পরে আসা ম্যাকবুক, ম্যাকবুক প্রো, ম্যাকবুক এয়ার, আইম্যাক, আইম্যাক প্রো, ম্যাক প্রো ডিভাইসটি মোহাভে আপডেট পাওয়া যাবে।

Leave a Reply