পুঁজিবাজারে আসতে চায় আরও একটি ব্যাংক

0

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে পুঁজিবাজার থেকে ১০০ কোটি টাকা সংগ্রহের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের সবুজ সংকেত পেয়েছে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স (এসবিএসি) ব্যাংক লিমিটেড।

বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এসবিএসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালককে চিঠি দিয়ে অনুমোদনের বিষয়টি জানানো হয়।

এখন চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে (বিএসইসি) আবেদনের প্রস্তুতি নিচ্ছে এসবিএসি ব্যাংক।

আইপিওর জন্য ব্যাংকটির পক্ষে ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশের (আইসিবি) অঙ্গপ্রতিষ্ঠান আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিামটেড।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের চিঠিতে বলা হয়েছে, এসবিএসি ব্যাংকের ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ পর্যন্ত আর্থিক বিবরণী বিবেচনা করে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে ১০০ কোটি টাকা মূলধন সংগ্রহের প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে।

উদ্যোক্তা মূলধনের অবশিষ্টাংশ পরবর্তীতে আরপিও (রিপিট পাবলিক অফারিং) ইস্যুর মাধ্যমে সংগ্রহের জন্য তাদের একটি সময়াবদ্ধ পরিকল্পনা করতে হবে।

এসবিএসি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, “ব্যাংকের আর্থিক বিবরণী নিরীক্ষার কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেই আইপিও নিবন্ধনের জন্য বিএসইসিতে আবেদন করা হবে। ডিসেম্বরের মধ্যেই তা আমরা করব।

তারিকুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, আইপিওর মাধ্যমে যে ১০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হবে, তার সিংহভাগই সরকারের বিভিন্ন সিকিউরিটিজ ও শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করা হবে।

১০০ কোটি টাকা সংগ্রহের জন্য ব্যাংকটি ১০ কোটি শেয়ার বাজারে ছাড়বে; প্রতি শেয়ারের দাম ১০ টাকা।

২০২০ সালের জুন শেষে ব্যাংকের মূলধন পর্যাপ্ততার হার দাঁড়িয়েছে ১৪ দশমিক ২৮ শতাংশ। চলতি বছরের জানুয়ারি-সেপ্টেম্বর সময়ে ইপিএস দাঁড়িয়েছে ৯৯ পয়সা; যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় দশমিক শূন্য এক শতাংশ বেশি।

ব্যাংকের অনুমোদিত মূলধন এক হাজার কোটি টাকা এবং সেপ্টেম্বর শেষে ব্যাংকের পরিশোধিত মূলধন দাঁড়িয়েছে ৬৮৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। কর পরবর্তী মুনাফা দাঁড়িয়েছে ৬৭ কোটি ৫১ লাখ টাকা।

দীর্ঘ ১২ বছর পর গত ১৮ নভেম্বর এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংককে আইপিও ছেড়ে ১২০ কোটি তোলার চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি।

Leave a Reply