টেকনো ইনফোঃ বর্তমানে যে দিকেই চোখ যায়, সকলের হাতে শুধুই স্মার্টফোন। আর তার দৌলতেই বেড়ে গেছে নানা ধরনের বিপদ।

ফেসবুক, ট্যুইটার, ইনস্টাগ্রামের মতো সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মে আমরা নিজেদের দৈনন্দিন জীবনের প্রায় সব তথ্যই উজার করে শেয়ার করি। কখন, কোথায়, কী করছি, বা করব না বলে ঠিক করেছি— সব কিছুই।

শত্রুর জন্য এই তথ্যই যথেষ্ট, আপনার ক্ষতি করার লক্ষ্যে। তাই সোশ্যাল মিডিয়ার পক্ষ থেকেই জানানো হয়েছে কয়েকটি সাবধানবাণী।

১। জন্ম তারিখ:
সাধারণত মানুষ নিজের জন্ম তারিখ দিয়েই তাঁদের নানা অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড ক্রিয়েট করেন। পাসওয়ার্ড মনে রাখার এটি খুবই সহজ উপায়। কিন্তু, হ্যাকারদের হাতে পড়লে বড়সড় ক্ষতি হতে পারে। তাই, তারিখের পুরোটা না দিয়ে কিছুটা ব্যবহার করুন পাসওয়ার্ড হিসেবে।

২। স্থান:
অপ্রয়োজনে নিজের অবস্থান পোস্ট না করাই ভাল। কেউ যদি আপনার পিছু নেবে বলে মনে করে, তা হলে তার পক্ষে খুবই সুবিধাজনক ব্যাপার হবে।

৩। ঠিকানা:
নিজের বাড়ির ঠিকানা একেবারেই আপনার ব্যাক্তিগত তথ্য। সেই তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করার মানে, বিপদকে আমন্ত্রণ জানানো।

৪। ফোন নম্বর:
ফেসবুকে নিজের ফোন নম্বর দেওয়ার জন্য প্রায়শই এই অ্যাপ্লিকেশন থেকে নোটিফিকেশন আসে। নেহাতই যদি সেই ইনপুট দিতে হয়, সে ক্ষেত্রে তা ‘ওনলি মি’ করে রাখুন।

৫। ছুটির প্ল্যান:
ছুটিতে আপনি কোথায় যাবেন, বা কবে থেকে বাড়িতে থাকবেন না, সে কথা একেবারেই সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করবেন না। ফাঁকা বাড়ির সুযোগ নিয়ে কেউ চুরিও করতে পারে।

৬। নিজের কর্মজীবন:
আপনি কোথায় চাকরি করেন, কখন অফিসে যান— এ সব তথ্য সবাইকে না জানানোই ভালো। সুত্রঃ বিডি প্রতিদিন

Leave a Reply